kalerkantho


সাবধান! সময় থাকতে সচেতন হোন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৬ এপ্রিল, ২০১৮ ১৭:১৫



সাবধান! সময় থাকতে সচেতন হোন

কর্মময় জীবনে যেন হাফ ছেড়ে বাঁচার উপায় নেই। কর্মব্যস্ত এই জীবনে চলার পথে অনেক সময় আমরা বেখেয়ালি হয়ে পরি। যার জন্য মুখোমুখি হতে হয় অনেক ধরনের অনাকাঙ্খিত ঘটনার। যার মধ্যে রয়েছে, রাস্তায় চলতে গিয়ে গাড়ি দুর্ঘটনার স্বীকার, প্রতারণা কিংবা ছিনতাইয়ের কবলে পরা। ছিনতাইয়ের কবলে পরে কেউ কেউ রিকশা থেকে পরে গিয়ে আহত কিংবা গুরুতর আহত হচ্ছেন। কখনো বা যাচ্ছে মহামূল্যবান প্রাণ। তাই নিজের জীবন বাঁচাতে প্রয়োজন নিজের সচেতনতা। আমাদের সবার সচেতনতায় হয়ে উঠতে পারে একটি নিরাপদ জীবনের বলয়। তাই চলার পথে ক্ষতি এড়িয়ে যেতে কিছু সতর্কতা অবলম্বন করলে হয়তো মিলতে পারে রক্ষা।

আসুন কিছু সতর্কতামূলক বিষয় সম্পর্কে জেনে নিই :

১. গাড়িতে জানালার পাশে বসে মোবাইল চালানো থেকে  বিরত থাকুন। বাস জ্যামে আটকা পড়লে ছিনতাইকারীরা জানালা দিয়ে হাত দিয়ে কেড়ে নিতে পারে আপনার পছন্দের মোবাইল ফোন। এছাড়াও জ্যামে থেমে থাকা সিএনজির ছাদ কেটে নিয়ে যেতে পারে মোবাইল ও পাস ব্যাগ।

২. রিকশায় চড়ে কোথাও যাওয়ার সময় নাকে বা কানে সোনার গহনা না পরলেই ভালো। কেননা ছিনতাইকারীরা যদি নাকে বা কানে গহনার জন্য হ্যাঁচকা টান দেয় তাহলে অনেক সময় কান ছিড়ে যায়। রিকশাতে বসে কোলে ব্যাগ রাখবেন না। পাশ থেকে মোটরসাইকেল কিংবা গাড়ি এসে হ্যাঁচকা টান দিতে পারে ছিনতাইকারীরা। এতে করে আপনি রিকশা থেকে পরে গিয়ে মাথায় বা শরীরে আঘাত পেতে পারেন। সেক্ষেত্রে রিকশায় যাতায়াতের সময় হুড তুলে রাখুন।

৩. অনেকেই গ্রাম থেকে খুব ভোরে বাস, ট্রেন কিংবা লঞ্চে করে ঢাকায় এসে পৌঁছান। রাস্তায় যথেষ্ট মানুষ না নামা পর্যন্ত টার্মিনালে বসে অপেক্ষা করুন। যখন ভালো করে সকাল হবে ঠিক তখনই গন্তব্যের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হউন।

৪. বাসে উঠলে প্যান্টের পিছনের পকেটে ওয়ালেট বা মোবাইল ফোন রাখা নিরাপদ নয়। প্রয়োজনে ওয়ালেটটি সামনের পকেটে রাখুন। মোবাইলটি হাতে রাখতে পারেন। তাহলে ছিনতাইকারীরা সহজে ছিনিয়ে নিতে পারবে না।

৫. নির্জন রাস্তা বা গলিপথ দিয়ে একাকী চলাচলে বিরত থাকুন। বিশেষ করে খুব ভোরে রাস্তায় চলাচল করা থেকে এড়িয়ে চলুন। বিশেষ প্রয়োজনে সতর্কতা অবলম্বন করে বাসযোগে যাতায়াত করা অধিকতর নিরাপদ।

৬. বড় অংকের নগদ টাকা কখনোই একাকী বহন করবেন না। ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করার পর সতর্কতা অবলম্বন করুন। না হলে ওঁৎ পেতে থাকা ছিনতাইকারী কেড়ে নিতে পারে আপনার সব টাকা।

৭. রাস্তায় কিছু খাবেন না। দূরপাল্লার যাত্রা হলে বাড়ি থেকে খাবার নিয়ে আসুন অথবা প্যাকেটজাত কিছু খান। পাশের যাত্রী কিছু দিলে খাবেন না। পানি বা ডাব কিনলে তাতে থাকতে পারে ঔষধ মেশানো। প্রতারকরা আপনাকে অজ্ঞান করে নিয়ে যেতে পারে আপনার কাছে থাকা সবকিছু। তাই কোনো রকম খোলা খাবার খাবেন না।

রাস্তায় কিংবা গাড়িতে চলাচল করতে গিয়ে যে বিষয়গুলো মাথায় রাখবেনঃ

১. চলন্ত গাড়ি থেকে লাফ দিয়ে নামা থেকে বিরত থাকুন। রাস্তার যেখানে সেখানে বা মাঝ রাস্তায় গাড়ি থেকে নামবেন না। গাড়ি থেকে নামার সময় বাম পাঁ দিয়ে নামুন। নির্দিষ্ট স্থান হতে গাড়ি থেকে উঠা-নামা করার চেষ্টা করুন।

২.  অতিরিক্ত যাত্রী হয়ে গাড়িতে উঠা থেকে বিরত থাকুন। গাড়ির দরজায় ঝুলন্ত অবস্থায় উঠবেন না। চলন্ত গাড়ির পিছনে যাত্রী হয়ে উঠবেন না। গাড়িতে উঠার পর গাড়ি থেকে হাত বাহিরে রাখবেন না। চলন্ত গাড়ি থেকে মাথা বের করবেন না।

৩. চলন্ত গাড়ির সামনে দিয়ে দৌঁড়ে পার হবেন না। আপনি হয়তো ভাবছেন যে ড্রাইভার গাড়িটি ব্রেক করবে, অপরদিকে ড্রাইভার ভাবছে আপনি গাড়ি দেখে দৌঁড়ে পার হয়ে যাবেন। অবশেষে উভয়ের ভুল বোঝাবুঝিতে ঘটে মারাত্মক দুর্ঘটনা। রাস্তা পারাপারের সময় জেব্রা ক্রসিং দেখে পার হন। ফুটওভার ব্রিজ ব্যবহার করুন।

৪. কানে মোবাইল ফোন বা হেডফোন দিয়ে রাস্তা পারাপারে বিরত থাকুন। অন্যমনস্ক হয়ে কখনোই পথ চলবেন না। গাড়িতে উঠে উচ্চস্বরে গান-বাজনা করা থেকে বিরত থাকুন। গাড়িতে উঠে ড্রাইভারের সাথে কথা বলা থেকে বিরত থাকুন। এতে করে গাড়ি চালকের মন অন্যমনস্ক হয়ে পড়তে পারে।

৫. ফুটপাত দিয়ে চলাফেরা করার চেষ্টা করুন। ফুটপাতে দাঁড়িয়ে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করুন। গাড়িতে উঠার পর সিট বেল্ট থাকলে তা বাঁধুন। গাড়ির ছাদে চড়বেন না।

তাই সতর্ক থাকুন সবসময়। চোখ কান খোলা রেখে চলার মতো বিকল্প আর কিছু নেই। নিজে সতর্ক থাকুন ও আপনজনকে সতর্ক করুন। সর্বোপরি চলার পথে আপনার বিচক্ষণতাই পারে আপনাকে একটি আসন্ন বিপদের হাত থেকে বাঁচাতে।

- ডিএমপি নিউজ



মন্তব্য