kalerkantho


১০ মিনিটের বিচারে নিরপরাধ নারীকে মৃত্যুদণ্ড!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ এপ্রিল, ২০১৮ ১৪:২৮



১০ মিনিটের বিচারে নিরপরাধ নারীকে মৃত্যুদণ্ড!

ছবি: প্রতীকী

মাত্র ১০ মিনিটে বিচার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করলেন ইরাকের এক বিচারক। অতপর এক নারীকে মৃত্যুদণ্ডের রায় দিলেন তিনি। এখানেই শেষ নয়, আরও ১৩ নারীকে খুব অল্প সময়ের বিচারে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি জঙ্গীগোষ্ঠী আইএস-এর সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে ইরাকে ৩০০ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ওই নারীরাও রয়েছেন। 

জানা গেছে, দুই বছর আগে আমিনা হাসান নামের এক তুর্কি নারী অবৈধভাবে ইরাকে আসেন। আইএস-অধ্যুষিত এলাকায় পরিবারসহ বসবাস করছিলেন তিনি। ইরাকি বিচারক মনে করেন, তিনি জঙ্গি সংগঠন আইএসের একজন সমর্থক।

বিচার চলাকালে আমিনাকে মাত্র ২ মিনিট সময় দেন বিচারক। এই সময়ের মধ্যেই আমিনাকে নির্দোষ প্রমাণের নির্দেশ দেন বিচারক। আর বিচারকার্য পরিচালনার মোট সময় ছিল ১০ মিনিট।

আদালতে আমিনা জানান, ইরাকে আইএস-নিয়ন্ত্রিত এলাকায় প্রায় দুই বছর ধরে বসবাস করছেন তিনি। কিন্তু আইএস-এর কাছ থেকে কোনোদিন এক পয়সাও সাহায্য নেননি তিনি। তাঁর দাবি, তুরস্ক থেকে পালিয়ে আসার সময় যে অর্থ নিয়ে এসেছিলেন তা দিয়েই তিনি পরিবার চালিয়েছেন।

নির্ধারিত ২ মিনিটে ওই সরল স্বীকারোক্তি দেন আমিনা। তবুও শেষ রক্ষা হয়নি। মাত্র ১০ মিনিটে বিচারকার্য শেষ করে আমিনাকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন বিচার। 

সূত্র: নিউইয়র্ক টাইমস 



মন্তব্য