kalerkantho


হংকংয়ের বাঁশের কেল্লা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ এপ্রিল, ২০১৮ ১৫:৫৯



হংকংয়ের বাঁশের কেল্লা!

ছবি অনলাইন

বাঁশের তৈরি কাঠামো শুধু আমাদের দেশে নয়, এশিয়ার আরো বহু দেশে জনপ্রিয়। হংকংয়ে রীতিমতো বাঁশের সহায়তায় তৈরি করা হয় অস্থায়ী থিয়েটার হল।

হংকংয়ের বাঁশের থিয়েটারের একটি ঐতিহ্য রয়েছে। প্রতি বছরই বাঁশের এ থিয়েটার বানানো হয়। এটি দীর্ঘ তিন দশক ধরে চলে আসছে। তবে এর ঐতিহ্য রয়েছে ১৮০০ সাল থেকে। সে সময় ব্রিটিশ উপনিবেশবাদের অধীনে ছিল হংকং।

বাঁশ দিয়ে যে এত দারুণ থিয়েটার হল তৈরি করা যায়, তা অনেকের ধারণাতেও ছিল না। কিন্তু বাস্তবে তা তৈরি করেই দেখিয়ে দিচ্ছে হংকংয়ের কর্মীরা।

বাংলাদেশেও বিভিন্ন উপলক্ষে বাঁশের কাঠামোর ওপর প্যান্ডেল বানানো হয়। তবে এ থিয়েটারের বৈশিষ্ট্য হলো বিপুল সংখ্যক বাঁশ ব্যবহার। এত বিপুল সংখ্যক বাঁশ ব্যবহার করে নিপুণভাবে থিয়েটারটি বানানো হয় যে, তা দেখে সবাই অবাক হয়। এতে এত বাঁশ ব্যবহৃত হয় যেন রীতিমতো বাঁশের কেল্লা!

এই থিয়েটারটি ৮১ ফুট প্রস্থ ও ১৩০ ফুট দৈর্ঘ্যবিশিষ্ট। এছাড়া এর উচ্চতা প্রায় ৪৫ ফুট উঁচু। এতে এক হাজার মানুষ থিয়েটার উপভোগ করতে পারে।

সম্প্রতি এ অস্থায়ী থিয়েটারের নির্মাণকৌশলে চমৎকৃত হয়ে একটি রিপোর্ট করেছে সিএনএন। তাদের দৃষ্টিতে বাঁশের এ ভবন একটি রহস্যময় নির্মাণশৈলি। কারণ এটি তৈরি করতে কোনো ডিজাইন অনুসরণ করা হয় না। দক্ষ শ্রমিকরাই এর নির্মাণকাজ করেন, যাদের সংখ্যা বর্তমানে কমে শ খানেকে পৌঁছেছে।

বাঁশের কেন? আরো বহু উপাদানই তো রয়েছে থিয়েটার তৈরির জন্য। কিন্তু কেন এ উপকরণটি দিয়েই থিয়েটার বানাতে হবে? এ প্রসঙ্গে আয়োজকরা বলছেন, এটি হংকংয়ের ঐতিহ্যের অংশ হয়ে উঠেছে। এছাড়া পরিবেশের জন্যও সহায়ক এ বাঁশের স্থাপনা। এটি যে কোনো স্থানে সহজেই স্থাপন করা যায়। এরপর দ্রুত খুলেও ফেলা যায়।

হংকং উন্নত দেশ। আর তাই বাঁশের স্থাপনা সেখানে কমই রয়েছে। বহু মানুষই এ থিয়েটার ভবনটি দেখে অবাক হন। কিভাবে এটি বানানো হয়েছে তা জেনে আরো আশ্চর্য হন তারা।



মন্তব্য