kalerkantho


নিজের মৃত্যু নিয়ে যা বলেছিলেন স্টিফেন হকিং

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ মার্চ, ২০১৮ ১৬:১০



নিজের মৃত্যু নিয়ে যা বলেছিলেন স্টিফেন হকিং

ছবি অনলাইন

বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে বিখ্যাত বিজ্ঞানীদের অন্যতম স্টিফেন হকিং মারা গেছেন। তার সন্তান লুসি, রবার্ট এবং টিম এক বিবৃতিতে ১৪ মার্চ বুধবার সকালে ক্যামব্রিজে নিজ বাসভবনে মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স ছিল ৭৬ বছর।

এক সাক্ষাৎকারে হকিং মৃত্যুকে ভয় পান না বলে জানিয়েছিলেন। কিন্তু খুব দ্রুত মরতেও চান না বলেছিলেন।

মৃত্যুর সঙ্গেই যেন বসবাস করতেন হকিং। প্রায় পাঁচ দশক আগে মাত্র ২১ বছর বয়সে মোটর নিউরন নামে একটি বিরল রোগে আক্রান্ত হন হকিং। এ রোগে পাঁচ বছরের মধ্যেই তার মারা যাওয়ার কথা ছিল। যদিও  প্রবল ইচ্ছাশক্তি, প্রাক্তন স্ত্রী ও যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্যসেবার দৌলতে সবার মিলিত প্রচেষ্টায় তিনি আরো প্রায় ৫৫ বছর বেঁচে ছিলেন।

ভগ্ন স্বাস্থ্য এবং এবং প্রায় চলৎশক্তিহীন হওয়া সত্ত্বেও জ্ঞানচর্চায় কোন চেষ্টার ত্রুটি রাখেননি। গবেষণা চালিয়ে গেছেন নিরলস। মূলত ১৯৭০ সালে বিজ্ঞানী হিসেবে প্রথম বড় সাফল্য পান তিনি। তিনি এবং তার সহ-গবেষক রজার পেনরোজ দেখান, সিঙ্গুলারিটি তথা একটি মাত্র বিন্দু থেকেই বিগ ব্যাং এর সূত্রপাত এবং সেখানেই আমাদের মহাবিশ্বের জন্ম।

গার্ডিয়ানকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নিজের মৃত্যু নিয়েও তিনি কথা বলেছেন ২০১১ সালে। তখন তিনি বলেছিলেন, ‘গত ৪৯ বছর ধরে মৃত্যুর অপেক্ষায় বেঁচে আছি আমি। আমি মৃত্যুকে ভয় পাই না, কিন্তু খুব দ্রুত মরতেও চাই না। মৃত্যুর আগে আমি আরও অনেক কিছু করতে চাই।’

তিনি কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে মানবজাতিকে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন। মানুষকে অন্য গ্রহে বসবাসে উৎসাহ দিয়েছেন এবং পরিবেশ বিপর্যয়ের ব্যাপারেও করেছেন ভবিষ্যদ্বাণী। এছাড়া এলিয়েনদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টাকেও মানুষের জন্য বিপজ্জনক হতে পারে বলে জানিয়ে গেছেন।


মন্তব্য