kalerkantho


চিরুনির মাঝে পাওয়া গেল ভাইকিং বর্ণের সূত্র

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৬:০১



চিরুনির মাঝে পাওয়া গেল ভাইকিং বর্ণের সূত্র

ছবি অনলাইন

ডেনমার্কের একটি প্রাচীন বাজারে খনন করে পাওয়া গেল পুরনো আমলের চিরুনি। তবে এই চিরুনিতেই যে এমন অদ্ভুত এক সূত্রের দেখা মিলবে তা গবেষকরা প্রথমে বুঝতেই পারেননি। কিন্তু সেই চিরুনিকে ভালোভাবে পর্যবেক্ষণেই বর্ণমালার মতো কিছু একটা নজরে পড়ে গবেষকদের। এরপর তা আরেকটু অনুসন্ধানে যা জানা গেল, তা অনেকটা কেঁচো খুড়তে সাপ পাওয়ার মতো বিষয়!

পরীক্ষায় জানা যায়, চিরুনিটির বয়স ১২০০ বছর। ভাইকিং আমলের প্রত্ন নিদর্শন হিসেবে চিরুনি পাওয়া খুবই সাধারণ একটি ব্যাপার। তাই ডেনমার্কের যে প্রত্নতত্ববিদরা চিরুনির খণ্ডগুলো পেয়েছিলেন, তারা বিষয়টিকে তেমন গুরুত্ব দেননি। এ কারণে নিয়ম অনুযায়ী ওগুলোকে সংরক্ষণের জন্য  পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল।

আরো পড়ুন : ম্যানহোলে পড়ে তিনদিন ধরে বের হওয়ার পথ খুঁজছিলেন তিনি!

চিরুনির ওপর কয়েক লাইন খোদাই করে কিছু লেখা রয়েছে, আর সেগুলো ছিল প্রাচীন ভাইকিং বর্ণ। এই চিরুনিতে পাওয়া বর্ণগুলোই ভাইকিং বর্ণমালার সৃষ্টি ও বিস্তারের রহস্য উদঘাটনে সাহায্য করবে বলে আশাবাদী গবেষকরা।

গবেষকরা বলছেন, চিরুনির একপাশে লেখা একটি শব্দ- চিরুনি এবং অন্যপাশে একই শব্দের ক্রিয়ারূপটি লেখা।

আরো পড়ুন : সৌদি আরবে মঞ্চনাটকের প্রথম অভিনেত্রী হতে যাচ্ছেন নাজাত

এ বিষয়ে আরহাস বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতত্ত্ব ও খনন বিভাগের প্রধান সোরেন সিন্ডবেক বলেন, ‘স্ক্যান্ডিনেভিয়ান ইতিহাসে গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়ের নতুন জন্ম সম্পর্কে জানতে পারছি আমরা।’

প্রত্নতত্ত্ববিদদের কাছে এই সামান্য কয়েকটি বর্ণ পাওয়ার তাৎপর্য অনেক। সেই ভাইকিং যুগে কিভাবে  বর্ণমালার বিকাশ হয়েছিল, সভ্যতা বিকাশের সংগে এর সম্পর্ক কিরূপ ছিল, তাঁর সবই জানা যেতে পারে এই চিরুনি থেকে।

সূত্র : সিএনএন


মন্তব্য