kalerkantho


আসল 'প্যাডম্যান' সম্পর্কে ১০টি তথ্য

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৮:২৭



আসল 'প্যাডম্যান' সম্পর্কে ১০টি তথ্য

বলিউডের 'প্যাডম্যান' সিনেমাটি ভারতের অরণাচলম মুরুগানান্থমের জীবনের উপর তৈরি করা। মুরুগানান্থম তাঁর গ্রামের মহিলাদের সস্তা স্যানিটারি প্যাড দেওয়ার দায়িত্ব নেন। যদিও অধিকাংশ লোক এই বিষয়ে কথা বলতে অনিচ্ছুক থাকেন। তখন মুরুগানান্থম ঋতুস্রাবের সময় তাঁর স্ত্রীকে নোংরা কাপড় ব্যবহার করতে দেখেন। এই বিষয় কিছু করার কথা ভাবেন এবং সস্তা প্যাডা বানানোর সিদ্ধান্ত নেন। আসুন জেনে নিই তার সম্পর্কে দশটি তথ্য ...

> মুরুগানান্থম খুব দরিদ্র পরিবারের ছেলে তাঁর পিতা কোয়েম্বাটুরে হ্যান্ডলুমের কাজ করতেন। মুরুগানান্থমের পড়াশোনার জন্য তাঁর মা চাষের কাজ করতেন।

> ১৪ বছর বয়সে, মুরুগানান্থম পড়াশোনা ছেড়ে দেন এবং বিভিন্ন ধরনের কাজ করার পরে একটি কারখানাতে খাদ্য সরবরাহের কাজ শুরু করেন। পরিবারকে সাহায্য করার জন্য তিনি মেশিন টুল অপারেটর, এজেন্টে, শ্রমিক এবং বিক্রেতারও কাজ করেন।

> ১৯৯৮ সালে বিয়ে করেন মুরুগানান্থম বিয়ের পর তিনি দেখেন তাঁর বউ মাসিকের সময় নোংরা কাপড় ব্যবহার করছেন। কারণ স্যানিটারি প্যাড কেনার জন্য টাকা ছিল না। স্ত্রীর সমস্যা দূর করার জন্য সস্তা প্যাড বানানোর অভিযান শুরু করেন।

> মুরুগানান্থম প্রথমে তুলোর ব্যবহার করতে শুরু করেন। কিন্তু তাঁর স্ত্রী ও বোন প্রত্যাখ্যান করেন। শুধু তাই নয়, তাঁরা মুরুগানান্থমের সাহায্য করতেও অস্বীকার করেছিলেন।

> প্যাড বানানোর প্রথমদিকে নারী স্বেচ্ছাসেবক সংস্হা খোঁজার চেষ্টা করেন। কিন্তু সফল হন নি, কারণ ভারতে এই বিষয়ে কথা বলা খারাপ বলে মনে করা হতো। কোনও মহিলার সাহায্য না পাওয়ার পর তিনি নিজে থেকে প্যাড বানানোর সিদ্ধান্ত নেন। যার ফলে আশেপাশের লোক তাঁকে নিয়ে মজা করতে শুরু করেন।

> সমস্ত প্রতিবাদের পরেও তিনি কাজ চালিয়ে যান এবং নিজের তৈরি প্যাডের বিশ্লেষণের জন্য তিনি স্থানীয় মেডিকেল কলেজগুলিতে বিনামূল্যে প্যাড বিতরণ করেন। কয়েক বছর পরে তিনি জানতে পারেন প্যাড কোম্পানিগুলি পাইনের ছাল থেকে উত্পন্ন সেলুলোজ ফাইবার ব্যবহার প্যাডে করে। যাতে তারা আর্দ্রতা শোষণ করে এবং প্যাডের আকার পরিবর্তন হয় না।

> মুরুগানান্থম সস্তায় প্যাড বানাতে চেয়েছিলেন। এর জন্য তিনি এমন একটি সস্তা মেশিন তৈরি করেছিলেন। যা চালানোর জন্য কম প্রশিক্ষণের প্রয়োজন। মুম্বাই থেকে প্রক্রিয়াজাত পাইনউড পাল্পের সরবরাহ পান। এই মেশিনের দাম প্রায় ৬৫ হাজার টাকা।

> ২০০৬ সালে আইআইটি মাদ্রাস সফরকালে তাঁকে ন্যাশনাল ফাউন্ডেশনের গ্রাসরুট টেকনোলজিকাল ইনোভেশন অ্যাওয়ার্ডে নিবন্ধিত হন এবং তিনি এই পুরস্কারটিও জেতেন।

> এরপর মুরুগানান্থম কখনও পেছনে ফিরে তাকাননি এবং বীজ তহবিল পাওয়ার পর জয়শ্রী ইন্ডাস্ট্রির প্রতিষ্ঠা করেন। এই প্রতিষ্ঠান গ্রামীণ এলাকায় প্যাড তৈরি মেশিন বিক্রি করে। এই মেশিনের কম দাম এবং চমৎকার কার্যকারিতার জন্য খুব প্রশংসা করা হয়।

> ২০১৪ সালে মুরুগানান্থমের নাম টাইম ম্যাগাজিনের ১০০ প্রভাবশালী ব্যক্তিদের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তিনি পদ্মশ্রী সম্মানও পেয়েছেন।



মন্তব্য