kalerkantho


হঠাৎ দুই লাখ অ্যান্টিলোপের মৃত্যু : কারণ জানালেন গবেষকরা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৪:০৭



হঠাৎ দুই লাখ অ্যান্টিলোপের মৃত্যু : কারণ জানালেন গবেষকরা

ছবি অনলাইন

কয়েক বছর আগে হঠাৎ করেই প্রায় দুই লাখ অ্যান্টিলোপের মৃত্যু হয় কাজাখস্তানে।  বিশাল আকৃতির এই হরিণগুলো অনেকেরই দারুণ প্রিয়। কিন্তু কি এক অজানা কারণে বিশাল চারণভূমি যেন অ্যান্টিলোপের মৃত্যুভূমিতে পরিণত হয়েছিল।

সম্প্রতি গবেষকরা জানিয়েছেন, সেই অ্যান্টিলোপগুলোর মৃত্যুর কারণ। তারা বলছেন, হঠাৎ একটি মারাত্মক ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণে অ্যান্টিলোপগুলোর মৃত্যু হয়।

আরো পড়ুন : দেশ পরিচিতি- কাজাখস্তান

কাজাখস্তানের বিশাল চারণভূমি দাপিয়ে বেড়ায় অ্যান্টিলোপ। আর সেই অ্যান্টিলোপগুলোরই মৃত্যুতে সবার মাঝে সাড়া পড়ে যায়। সে সময় মাত্র চার দিনে মারা যায় ৬০ হাজার অ্যান্টিলোপ। কয়েকদিনের মধ্যেই এ সংখ্যা দুই লাখে পৌঁছায়। এটি বিশ্বের মোট অ্যান্টিলোপদের অর্ধেকেরও বেশি।

এ ঘটনার পর জিওইকোলজিস্ট স্টিফেন জুথার এবং তার সহকর্মীরা ছুটে গেলে সেন্ট্রাল কাজাখস্তানে। সাইগা প্রজাতির প্রাণীদের বংশধরদের কবর দেওয়ার বিশাল কর্মযজ্ঞ এক পলক দেখতে। ২০১৫ সালের মে মাস থেকেই এরা মারা যেতে থাকে। কিন্তু তা প্রাণী বিজ্ঞানীদের সাবধান করার জন্যে যথেষ্ট ছিল না।

আরো পড়ুন : কাজাখস্তান শান্তি আলোচনায় অংশ নেবে সিরীয় বিদ্রোহীরা

ভেটেরানিয়ান এবং প্রাণী সংরক্ষণ সংস্থাগুলো এক সময় থেকে ঘাম ছুটিয়েছে। কিন্তু কিছুতেই কিছু হয়নি। এরপর ক্রমে প্রায় দুই লাখ অ্যান্টিলোপের মৃত্যু ঘটে।

লন্ডনের রয়াল ভেটেরিনারি কলেজের গবেষকরা অ্যান্টিলোপদের মৃতদেহ নিয়ে গবেষণায় দেখতে পান তাদের দেহে প্যাসটিউরেলা মালটোসিডা নামে একটি  বিশেষ একটি ব্যাকটেরিয়া বাসা বেঁধেছে। আর সে ব্যাকটেরিয়ার কারণেই তাদের মৃত্যু হয়।

গবেষকরা বলছেন, অ্যান্টিলোপগুলোর মৃত্যুর কয়েকদিন আগে সেখানে তাপমাত্রা ও আর্দ্রতা বেড়ে যায়। এরপর তাদের দেহে ওই বিশেষ ব্যাকটেরিয়াটি ছড়িয়ে পড়ে। ফলে ক্রমে বিশ্বের অর্ধেকের বেশি অ্যান্টিলোপ ওই ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণে মারা যায়।

সূত্র : ইনডিপেনডেন্ট



মন্তব্য