kalerkantho


গবেষণার গল্প শোনাতে দুই পদার্থবিজ্ঞানী মাভাবিপ্রবিতে

আফরোজা খাতুন   

১৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৯:৩১



গবেষণার গল্প শোনাতে দুই পদার্থবিজ্ঞানী মাভাবিপ্রবিতে

অধ্যাপক এ এ মামুন (বাঁয়ে) এবং অধ্যাপক সালেহ্ হাসান নকীব। ছবি সৌজন্যে: মাসুম হায়দার এবং রিসার্চ গেট ডটনেট।

'পদার্থবিজ্ঞান তত বড় বিষয় নয়, যতটা বড় ভালোবাসা।' বলেছিলেন পদার্থবিজ্ঞানী রিচার্ড ফাইনম্যান। কিন্তু কারো কারো ক্ষেত্রে ভালোবাসা আর পদার্থবিজ্ঞান দুটোই সমার্থক শব্দ হয়ে যায়। তখন পদার্থবিজ্ঞানই তার 'জীবন ও জগত' হয়ে যায়। প্রকৃতির রহস্য উন্মোচনে বুঁদ হয়ে যান গবেষণায়। পদার্থবিজ্ঞানী রবার্ট ওপেনহেইমার যেমন বলেছিলেন, 'পদার্থবিজ্ঞান আমার কাছে বন্ধুর চেয়ে বেশি।'
এরকমই পদার্থবিজ্ঞানের দুই আলোকিত মুখ এ এ মামুন এবং অধ্যাপক ড. সালেহ হাসান নকীব। ড. মামুন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞানের অধ্যাপক। প্লাজমা পদার্থবিজ্ঞানের সাধক তিনি। ড. নকীব রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞানের অধ্যাপক। পদার্থের পরমপরিবাহিতাই (অতিপরিবাহিতা বা সুপারকন্ডাক্টিভিটি) তার ধ্যানজ্ঞান।

পদার্থবিজ্ঞানের এই দুই গবেষককে আমন্ত্রণ জানিয়েছে মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (মাভাপ্রবি) পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ। শনিবার 'পদার্থবিজ্ঞানের গবেষণা ও প্রাতিষ্ঠানিক পেশাজীবন' শীর্ষক এক আলোচনায় তারা নিজেদের বিজ্ঞানসাধনার গল্প শোনাবেন। সকাল সাড়ে নয়টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত এই আয়োজন চলবে।

মাভাপ্রবির পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ জানিয়েছে, অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আলাউদ্দিন এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ড. পিনাকী দে।

এই 'ওয়ার্কশপের' উদ্দেশ্য সম্পর্কে জানতে চেয়েছিলাম মাভাপ্রবির পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান, সহকারী অধ্যাপক মো. মনিরুজ্জামানের কাছে। তিনি বলেন, 'পদার্থবিজ্ঞানের একটা ভালো ভবিষ্যৎ আছে। এই বিষয়ে গবেষণার ক্ষেত্রও প্রসারিত। এই দিকগুলোই শিক্ষার্থীদের সামনে তুলে ধরার প্রয়াস এটা। এ ছাড়া পদার্থবিজ্ঞানের প্রতি শিক্ষার্থীদের আগ্রহ বাড়িয়ে তোলা, আরো অনুপ্রাণিত করার জন্যই এই ওয়ার্কশপের আয়োজন করা হয়েছে।'

মনিরুজ্জামান আরো বলেন, 'অধ্যাপক ড. এ এ মামুন এবং অধ্যাপক ড. সালেহ হাসান নকীব- এই দুই পদার্থবিজ্ঞানীই নিজ নিজ ক্ষেত্রে স্টার। তাদের কাছ থেকেই তাদের কথা ও কাজ সম্পর্কে জানতে পারলে শিক্ষার্থীরা আরো আগ্রহী হবে বলে আমার বিশ্বাস।'

মাভাপ্রবির পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মাসুম হায়দারের শিক্ষক অধ্যাপক মামুন। শনিবারের আয়োজন সম্পর্কে তিনি বলেন, 'দেশে ও আন্তর্জাতিকভাবে পদার্থবিজ্ঞান নিয়ে কী কী কাজ হচ্ছে, পদার্থবিজ্ঞানের ভবিষ্যৎ কী, কোথায় গবেষণার কেমন সুযোগ আছে, এসব বিষয় দুই বিজ্ঞানীর আলোচনায় উঠে আসবে। দুইজন বড় মাপের বিজ্ঞানীকে কাছ থেকে দেখলে, আশা করি, শিক্ষার্থীরা পদার্থবিজ্ঞানের প্রতি কৌতূহলী হয়ে উঠবে। শিক্ষার্থীদের মধ্যে একটা আস্থা ও আত্মবিশ্বাস তৈরি হবে। পদার্থবিজ্ঞানের প্রতি ভয় কাটিয়ে বিভিন্ন কাজ করার অনুপ্রেরণা পাবে।'

পদার্থবিজ্ঞানে ভর্তি হয়ে শিক্ষার্থীরা হতাশায় ভোগে; তারা মনে করে, অন্য কোনো বিযয় নিয়ে পড়লে হয়ত ভালো কিছু করতে পারত। দুই বিজ্ঞানীর সঙ্গে সময় কাটালে এই হতাশাগুলো কাটিয়ে নতুন সম্ভাবনার দিকে শিক্ষার্থীরা আগ্রহী হবে বলে আমার বিশ্বাস।' সহযোগী অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন আরো বলেন, 'আমরা এই বার্তাই শিক্ষার্থীদের কাছে পৌঁছাতে চাই, তোমরা যারা পদার্থবিজ্ঞান পড়ছ, তোমরা আগ্রহ নিয়ে পড়াশোনা কর, দেখবে তোমাদের ভবিষ্যৎ উজ্জল।

পরমপরিবাহিতার ইতিহাস অন্তত এক শ বছর পুরনো হলেও উচ্চ তাপমাত্রায় পদার্থের পরমপরিবাহিতার ধারণার বয়স মাত্র তিন দশকের। এ নিয়ে আলবার্ট আইনস্টাইনের আপেক্ষিকতার সাধারণ তত্ত্বের শতবর্ষ পূর্তি উপলক্ষে ২০১৫ সালের ২৫ নভেম্বর কথা হয়েছিল বিজ্ঞানী সালেহ হাসান নকীবের সঙ্গে। তখন তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেছিলেন, 'আগামী এক শ বছরের মধ্যেই উচ্চ তাপমাত্রায় অতিবাহিতার তত্ত্বীয় রূপ দাঁড় করানো সম্ভব হবে।' এমনকি ২০১৬ সালের আগস্টে আমাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ড. নকীব বলেছিলেন, 'আমরা আশাবাদী, একদিন কক্ষ তাপমাত্রায়ও সুপারকন্ডাক্টিভিটি পাওয়া যাবে।'



মন্তব্য