kalerkantho


অদ্ভুত সব ক্যাফেতে স্বাগত জানাচ্ছে জাপান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ জানুয়ারি, ২০১৮ ১২:০২



অদ্ভুত সব ক্যাফেতে স্বাগত জানাচ্ছে জাপান

জাপানে বেশ কিছু অদ্ভুত ধরনের ক্যাফে বা খাবার ঘর আছে। এটা ধারণা করা হয়ে থাকে যে খাবারের সাথে জাপানের সাংস্কৃতিক ঐহিহ্য অনেকটা জড়িত। কেউ যদি যদি জাপানে ঘুরতে যান তবে এমন কিছু ক্যাফের দ্বারস্থ কিন্তু আপনি হতেই পারেন। কিংবা এমন ক্যাফেগুলোতে বসে আহার না করলে জাপান ভ্রমণ অনেকটাই ব্যর্থ বলে মনে করেন অনেকে। এমনই চারটি থিম ক্যাফে সম্পর্কে এই প্রতিবেদনে আলোচনা করা হলো।

বিড়াল ক্যাফে
এ ধরনের একটি ক্যাফে জাপানের ঐহিহ্যের সাথে খুব একটা মেলে কি-না তা জানা যায়নি, তবে এখানে এসে খাবার গ্রহণ করতে অনেকেই পছন্দ করেন। এখানে খেতে গেলে বিড়ালরা আপনাকে সঙ্গ দেবে। তারা আপনার সাথে খেলবে, আনন্দ করবে এবং আপনার খাওয়ার সময়টাকে ফুর্তিময় করবে। তবে তারা কোনোভাবেই বিরক্ত করে আপনার খাবার গ্রহণের আনন্দকে মাটি করবে না। এখানে বলে রাখা প্রয়োজন, ক্যাট ক্যাফের ধারণা প্রথমে প্রতিষ্ঠিত করে তাইওয়ান। তাইওয়ানের রাজধানী তাইপেতে প্রথম ক্যাট ক্যাফে যাত্রা শুরু করে ১৯৯৮ সালে, নাম ছিল ক্যাট ফ্লাওয়ার গার্ডেন।  

পেঁচা ক্যাফে
এটা একটি মজার ক্যাফে। এখানে খাদ্য বা পানীয় গ্রহণের সময় আপনার সঙ্গী হবে পেঁচার দল। এখানে বসে কফি খাওয়ার সময় আপনি এসব পেঁচাদের ছুঁতে পারবেন এবং তাদের সাথে খেলতে পারবেন। এ এক দারুণ অভিজ্ঞতা আপনার জন্য।

মাহিকা ম্যানো ক্যাফে
জাপনের আর একটি অদ্ভুত ধরনের ক্যাফে এটি। এই ক্যাফেটির বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো এখানে আপনি হ্যামকস-এ বসে খেতে পারবেন যা আপনার ইচ্ছে। আর হ্যামকস হলো এক বিশেষ ধরনের বিছানা যা ক্যানভাস বা মোটা শক্ত কাপড় বা দড়ি দিয়ে তৈরি করা হয়, যার দুই প্রান্ত দুপাশে দুটি শক্ত কিছুর সাথে বাঁধা থাকে। হ্যামকস সাধারণত বাগান বা প্রমোদতরীর ডেকে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এখানে বসে খাবার গ্রহণ করলে এক অন্যরকম অভিজ্ঞতা হয়।

১০০% চকলেট ক্যাফে
এ ক্যাফেতে থরে থরে সাজানো আছে ৫৬ ধরনের চকলেট, আপনার বেছে নেওয়ার অপেক্ষায়। 

এখন ভেবে নিন, কোন ক্যাফেটিতে আপনি প্রথমে যেতে চান।
 



মন্তব্য