kalerkantho


বন্ধুর বিয়েতে এসে বন্দুকের নলে, করতে হলো বিয়ে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ জানুয়ারি, ২০১৮ ১২:৫৫



বন্ধুর বিয়েতে এসে বন্দুকের নলে, করতে হলো বিয়ে

ভারতের ঝাড়খন্ডের ২৯ বছর বয়সী যুবক বিনোদ কুমার আমন্ত্রিত হয়ে গিয়েছিলেন বিহারের ইসলামপুরে বন্ধুর বিয়ের এক অনুষ্ঠানে। কিন্তু ওই বিয়ে বাড়িতে ঠিক কী অপেক্ষা করছে তা হয়তো কল্পনাও করতে পারেননি তিনি। বিয়ে বাড়িতে যাওয়ার পরপরই তার মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে বসিয়ে দেওয়া হয় বিয়ের পিঁড়িতে।

জানা গেছে, ২০১৭ সালের ৩ ডিসেম্বর ইসলামপুরে এক বিয়ের অনুষ্ঠানে যান তিনি। সেখানে যাওয়ার পরপরই তার মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে জোর করে বিয়ে দেওয়া হয়।

ইতিমধ্যেই বিনোদের বিয়ের ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। ভিডিওতে দেখা গেছে, জোর করে তাকে বিয়ের পিঁড়িতে বসানো হয়েছে। সেখানে কান্নাকাটি করছেন বিনোদ।

বিয়ে করতেও অস্বীকার করেন তিনি। তবে কনেপক্ষ একেবারেই নাছোড়বান্দা। বিনোদকে তারা ছেড়ে দিতে রাজি নন। তাদের দাবি, বিয়ে তো দেওয়া হচ্ছে, তাকে ফাঁসি দেওয়া হয়নি তো!

একজনকে দেখা যাচ্ছে, বিনোদের চোখের পানি মুছে দিতে। অবশ্য তার পাশেই ঘোমটা দিয়ে বসেছিলেন কনে। তবে তাকে কোনো কথা বলতে দেখা যায়নি।

এমনকি এ বিয়েতে তার মতামত আছে কি না সেটাও জানা যায়নি। কনের মুখটাও দেখা যায়নি ভিডিওতে।

তবে জানা গেছে, জোর করে বিয়ে দেওয়া সেখানকার রীতি। এটাকে বলে 'পাকাডুয়া' বিয়ে। বিয়ের পর থানায় এ ব্যাপারে অভিযোগ করলেও পুলিশ কোনো রকম সাহায্য করেনি।
সূত্র : জিনিউজ



মন্তব্য