kalerkantho


ট্রাম্পের কোনো পরমাণু বোমার সুইচ নেই!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ১০:৪০



ট্রাম্পের কোনো পরমাণু বোমার সুইচ নেই!

ছবি অনলাইন

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন নববর্ষের ভাষণে দাবি করেছেন, তার টেবিলেই পরমাণু বোমার সুইচ বা বোতাম আছে। তার জবাবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করেন, তার কাছেও পরমাণু বোমার সুইচ আছে। সেটি কিমের পরমাণু বোমার সুইচের চেয়ে অনেক বড় বলেও তিনি দাবি করেন।

কিন্তু বাস্তবে কি ট্রাম্পের কাছে পরমাণু বোমার সুইচ আছে? এক অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে বিবিসি জানিয়েছে, বাস্তবে ট্রাম্পের কাছে কোনো পরমাণু বোমার সুইচ নেই।


আরো পড়ুন : আমার কাছেও পরমাণু বোমার বোতাম আছে, কিমকে ট্রাম্প


পরমাণু বোমা নিক্ষেপের প্রক্রিয়াটি সুইচ টিপে দেওয়ার মতো সহজ নয়। এ জন্য বেশ জটিল প্রক্রিয়া অনুসরণ করতে হয়।

জং-উন গত সোমবার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে প্রচারিত নববর্ষের ভাষণে হোয়াইট হাউসের নেতৃত্বকে হুমকি দেওয়ার পর নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে এ পাল্টা জবাব দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তবে তার সে পাল্টা হুমকিতে একটু ভুল রয়েছে।

সোমবার সন্ধ্যায় এই টুইটের আগে ট্রাম্প তার সরকারের মধ্যপ্রাচ্য সংঘাত মোকাবিলার নীতিসহ বিভিন্ন বিষয়ে সংবাদমাধ্যমের প্রকাশিত প্রতিবেদন নিয়েও অ্যাকাউন্টে ডজনখানেক বার্তা ছাড়েন। এর আগে জং-উন তার ভাষণে বলেন, আমার টেবিলে আমি সব সময় পরমাণু বোমার বোতাম সক্রিয় রেখেছি। যেন যুক্তরাষ্ট্র কখনোই যুদ্ধ শুরু করতে না পারে। পুরো যুক্তরাষ্ট্র এখন উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্রের আওতায়- ওয়াশিংটনকে এ কথা স্মরণ করিয়ে দিলেও নিজের বক্তব্যকে হুমকি বলেননি জং-উন। তার ভাষায়, এটাই হচ্ছে বাস্তবতা। এটা কোনো হুমকি নয়।


আরো পড়ুন : পরমাণু অস্ত্রের সুইচ আমার টেবিলেই আছে : নববর্ষের ভাষণে কিম


যেভাবে পরমাণু বোমা নিক্ষেপ করা হয়
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে কোনো পরমাণু বোমার সুইচ না থাকলেও অন্য একটি জিনিস আছে, যাকে বলা হয় ফুটবল। ট্রাম্পের সঙ্গে সব সময়েই একটি চামড়ার সুটকেস থাকে। তিনি নিজে বহন না করলেও এটি তার সঙ্গীরা বহন করে। এমনকি গলফ খেলার সময়েও একজন তার সঙ্গে সঙ্গে এ সুটকেস নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে।

ট্রাম্পের সেই সুটকেসের ভেতরেও অবশ্য কোনো পরমাণু বোমা ফাটানোর বাটন বা সুইচ নেই। তার বদলে এটি হলো একটি যোগাযোগের যন্ত্র। যুদ্ধ যদি শুরু হয়েই যায় তাহলে এ সুটকেস দিয়ে সেনাপ্রধানের সঙ্গে যোগাযোগ করে তিনি পরমাণু বোমা নিক্ষেপের নির্দেশ দিতে পারবেন।
সূত্র : বিবিসি

 



মন্তব্য