kalerkantho


পলিটিক্সকে ডরাই না, ডরাই মিডিয়াকে: রাজনীতিতে আসার ঘোষণায় রজনীকান্ত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৩:০১



পলিটিক্সকে ডরাই না, ডরাই মিডিয়াকে: রাজনীতিতে আসার ঘোষণায় রজনীকান্ত

দক্ষিণ ভারতের তারকা রজনীকান্ত বছরের শেষ দিনে তাঁর রাজনৈতিক ইনিংস ঘোষণা করেছেন। এদিন চেন্নাইয়ের সমবেত ভক্তদের সুপারস্টার রজনীকান্ত বলেন, আমি রাজনীতিতে আসছি। 

তার রাজনীতিতে আসা নিয়ে বেশকিছুদিন ধরেই গুঞ্জন চলছিল। প্রসঙ্গত, দক্ষিণ ভারতে রজনীকান্ত এতটাই জনপ্রিয় যে ধারণা করা হয়- তিনি চাইলে যে কোনো সময়েই তার রাজ্যের সরকারকে ফেলে দিতে পারেন।

সাবেক মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতা মারা যাওয়ার পরে এক অনুষ্ঠানে এমন কথার স্বীকৃতি রজনীর মুখে শোনা গিয়েছিল। তিনি দুঃখপ্রকাশ করে জানিয়েছিলেন, একবার তিনি সাবেক জনপ্রিয় নায়িকা ও মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতার সমালোচনা করেছিলেন- তারপরের নির্বাচনে জয়ললিতার দল হেরে যায়, তিনি ক্ষমতাচ্যুত হন।  

আরো পড়ুন  সালমান, তুমি আমার ছেলের মতো : ধর্মেন্দ্র

চেন্নাইয়ের শ্রী রাঘবেন্দ্র কল্যাণ মণ্ডপে জড়ো হওয়া ভক্তদের রজনী জানান যে তিনি রাজনীতি কুটিল জগৎকে ভয়-ডর পান না, তবে অবশ্যই মিডিয়াকে ভয় পান। 

রজনীকান্ত বলেন, তবে আমার রাজনীতিতে আসতে সময় লাগবে।  অবশ্য তবে তার কথায় বোঝা যায় সেই সময়টা বেশি দীর্ঘ হবে না।

আরো পড়ুন  কোথায় চোখ রাখতে হবে ২০১৮ সালে

দক্ষিণ ভারতের সিংহভাগ মানুষের পরমপ্রিয় শ্রদ্ধাভাজন রজনীকান্ত ঘোষণা করেন যে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে তিনি ২৩৪ আসনের সবকটি আসনে প্রার্থী দিতে সক্ষম হবেন। সেজন্য নির্বাচনের আগে রাজনৈতিক দল গঠন করবেন।

তিনি বলেন, তামিলনাড়ুতে রাজনৈতিক পরিবর্তনের সময় এসে গেছে। তিনি অভিযোগ করেন, গণতন্ত্রকে এ রাজ্যে ক্ষতিগ্রস্ত করা হয়েছে। 

টু্ইটারে রজনীকান্তর ঘোষণা

তার প্রত্যেকটি ঘোষণা আর বাক্যে উপস্থিত ভক্তরা উল্লাস প্রকাশ করে করতালি দেয়। মহাতারকাকে তারা রাজনীতির অঙ্গনে আসতে আগাম স্বাগত জানাতে থাকে। 

রজনীকান্ত দাবি করেন যে তিনি তামিলনাড়ুর রাজনৈতিক সংস্কৃতির পরিবর্তন করবেন। 

তিনি জানান, তার রাজনীতি ক্ষমতা, অর্থ এবং রাজনীতিক শক্তির লোভের জন্য হবে না।

আরো পড়ুন  শাকিবকে বললেন সানী, 'অপুকে নিয়েই সংসার করো'

অপরদিকে, রাজনীকান্তের রাজনীতিতে আসার ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে দক্ষিণের অপর সুপারস্টার কমল হাসানের রাজনীতিতে আসার বিষয়টিও আলোচনায় আসছে। তিনিও এ ব্যাপারে আগ্রহ দেখিয়েছেন সম্প্রতি এবং রাজ্যের রাজনৈতিক পরিস্থিতির সমালোচনা করেছেন। তবে কমল কি রজনীর পার্টিতে যোগ দেবেন না নিজে আলাদা পার্টি করবেন- এটাই এখন দেখার বিষয়। জনসত্তা.কম, ইন্ডিয়াটাইম্‌স.কম

 

    


মন্তব্য