kalerkantho


রসুন সবজি না মশলা? জানতে আদালতে মামলা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৭:১২



রসুন সবজি না মশলা? জানতে আদালতে মামলা

কত কিছু নিয়েই না কোর্টে যায় মানুষ! তার সর্বশেষ উদাহরণ হল রসুন।

না, আপনার পড়তে ভুল হয় নি - মামলাটা রসুন নিয়েই।

ভারতের রাজস্থান হাইকোর্টে মামলা দায়ের হয়েছে এটা নির্ধারণ করতে যে রসুন আসলে কোনও সবজি না মশলা?
সরকারের কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছে আদালত। অথচ রাজস্থান সরকারেরই এক নির্দেশের ফলে রসুন নিয়ে এই বিভ্রান্তি।

২০১৬ সালে জারি করা এক নির্দেশে সে রাজ্যের সবজির পাইকারি বাজারগুলিতে রসুন বিক্রি করা যায় না। পরিবর্তে দানাশস্যের বাজারে বিক্রি করতে হবে বলে জানিয়েছিল সরকার।

ব্যাপারীদের হয়েছে ওই নির্দেশ নিয়েই সমস্যা। দানাশস্যের বাজারে রসুন বিক্রি করলে দুই শতাংশ কমিশন পাওয়া যায়, অথচ সবজি বাজারে যখন রসুন বিক্রি হত, তখন ছয় শতাংশ কমিশন পাওয়া যেত।

আয় কমে যাওয়ার ফলে হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছে যোধপুর আলু-পেঁয়াজ ও রসুন বিক্রেতা সংগঠন।
তাদের প্রশ্ন কেন দানাশস্যের বাজারে রসুন বিক্রি করা হবে?

সংগঠনটির প্রধান বংশীলাল সাঙ্খলা বিবিসিকে বলছেন, "গত ৪০ বছর ধরে সবজি বাজারেই রসুন বিক্রি করছি আমরা। কোনও সমস্যা হয় নি।

শুধু সবজির পাইকারি বাজারের জায়গাটা এখন কম হচ্ছে। সরকার তো সেটা ব্যবস্থা করতে পারত। তা না করে রসুন বিক্রিই বন্ধ করে দিল সবজি বাজার থেকে। "

রাজ্য সরকার গতবছর থেকেই এই নতুন ব্যবস্থা চালু করেছে সবজি বাজারের স্থানাভাবের কারণ দেখিয়েই।

মামলা হওয়ার পরে অবশ্য বার বার চেষ্টা করেও রাজস্থান সরকারের কোনও বক্তব্য জানা যায় নি এই বিষয়ে।
তবে রসুন সবজি না আনাজ - সেই বিতর্কের কী হবে!

ভারতীয় কৃষি গবেষণা সংস্থার বিজ্ঞানী ড. প্রীতম কালিয়ার কথায়, "রসুন মূলত সবজিই, কিন্তু এর ব্যবহার হয় মশলা হিসাবে। রসুনের চাষও হয় সবজি হিসাবেই। আনাজ বাজারে রসুন বিক্রি করার কথা কেন বলা হচ্ছে জানি না, কারণ রসুন কোনোভাবেই আনাজ বা দানাশস্যের মধ্যে পড়ে না। "

পেঁয়াজ যেরকম মাটির নীচে হয়, সেই একই প্রজাতির সবজি রসুন আর টিউলিপ।

পেঁয়াজ আর রসুনকে ভাই-বোনও বলা চলে - দুটো নাম অনেক ক্ষেত্রেই এক সঙ্গেই উচ্চারিত হয় রান্নাঘরে।

অ্যান্টিবায়োটিক, অ্যান্টি ভাইরাল আর অ্যান্টিফাঙ্গাল গুণাগুণ সমৃদ্ধ রসুনের উপকারিতা প্রাচীনকাল থেকেই স্বীকৃত।

শুধু যে জ্বর-কাশি এসব থেকে রক্ষা করে রসুন, তা নয়। রসুনের মধ্যে যেসব রাসায়নিক আছে, সেগুলো প্রাকৃতিক ব্লাড-থীনার বা রক্ত পাতলা করার কাজ করে। যার ফলে ধমনীতে কোলেস্টেরল জমে গিয়ে ব্লকেজ হয়ে হৃদযন্ত্র অচল হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই কমে যায় বলে চিকিৎসকরা মনে করেন।

রসুনের এত গুনাগুণ থাকা সত্ত্বেও বহু মানুষের যে এটা অপছন্দ, তার কারণ রসুন খাওয়ার পরে যে তীক্ষ্ণ গন্ধ বেরয়, সেটা অনেকের কাছেই অসহ্য হয়ে ওঠে।

রসুনের গন্ধ দূর করার বহু ধরণের টোটকা, নানা নিয়ম নিয়ে আলোচনা হয়, চর্চা হয় - কিন্তু রসুনের তীক্ষ্ণ গন্ধ দূর করা বেশ কঠিন।

তাই রোগবালাই সারানোর জন্য যাদের রসুন খাওয়া অত্যন্ত জরুরী, অথচ গন্ধটা সহ্য করতে পারেন না, তাদের জন্য গন্ধহীন রসুন নির্যাসের ট্যাবলেটও পাওয়া যায়।

আবার শুধু যে রোগ দূর করতে রসুনের প্রয়োজন, তা নয়।

রোমানিয়ায় অনেকেই বাড়ির নানা দিকে রসুন ঝুলিয়ে রাখেন। তাতে 'দুষ্ট আত্মা' দূর হয় বলেই সেখানকার বহু মানুষের অন্ধ বিশ্বাস!

- বিবিসি বাংলা


মন্তব্য