kalerkantho


থানায় চটুল গানে কোমর দুলিয়ে পুলিশের নাচ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১২:৩৮



থানায় চটুল গানে কোমর দুলিয়ে পুলিশের নাচ

থানার ভিতর তারস্বরে বাজছে চটুল হিন্দি গান। কোমর দুলিয়ে নাচছেন এক পুলিশ আধিকারিক। তাল ঢুকছেন মহিলা পুলিশকর্মীরাও। বিহার বা উত্তরপ্রদেশ নয়, এমনই ছবি দেখা গেল এ রাজ্যের আসানসোলের হীরাপুর থানায়। থানায় পুলিশকর্তার নাচের ভিডিও ছড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। যা বলে ভাইরাল। ঘটনায় বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনার লক্ষ্মীনারায়ণ মিনা। অভিযুক্ত এসআইকে ক্লোজ করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, ভিডিও-তে যে পুলিশকর্মীকে নাচতে দেখা গিয়েছে, তাঁর নাম কৃষ্ণসাধন মণ্ডল। হীরাপুর থানাতেই এসআই পদে কর্মরত তিনি।


আরো পড়ুন: নায়কের সঙ্গে উর্দি পরে নাচ নিয়ে বিতর্ক


ভিডিও দেখা গিয়েছে, চটুল হিন্দি গানের সঙ্গে উর্দি গায়ে রীতিমতো কোমর দুলিয়ে নেচেই চলেছেন গোলগাল চেহারার ওই পুলিশ আধিকারিক।

সামনে বসে বাহ বাহ আওয়াজ করে এসআইকে নাচে উৎসাহ দিচ্ছেন থানার কয়েকজন মহিলা পুলিশকর্মীও। এমনকী, গারদের পিছনে থেকে অবাক চোখে এসআইয়ের নাচ দেখছেন একজন আসামীও। ঘটনার ভিডিও এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। পুলিশ মহলের একাংশের ধারণা, সম্ভবত হীরাপুর থানার এসআই কৃষ্ণপদ মণ্ডলের নাচের ভিডিও তুলেছেন কোনও পুলিশকর্মীই। পরে সেটি কোনওভাবে ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কিন্তু, এই ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়তেই বেজায় অস্বস্তিতে পড়েছে আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেট। অভিযুক্ত এসআই কৃষ্ণপদ মণ্ডলকে ইতিমধ্যেই ক্লোজ করেছে আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনার। ঘটনার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ কমিশনার লক্ষ্মীনারায়ণ মিনা।


আরো পড়ুন: নতুন এই গ্যাংনাম নাচ দেখা হয়েছে ১৫


এখন প্রশ্ন হল, ওই পুলিশ আধিকারিকের এত ফূর্তির কারণটা কী?  হঠাৎ থানায় হিন্দি গান চালিয়ে তিনি নাচলেনই বা কেন? এবিষয়ে অবশ্য স্পষ্ট করে কিছু জানা যায়নি। তবে সূত্রের খবর, কয়েক দিন আগেই স্থানীয় এক ব্যবসায়ী খুনে তিন অভিযুক্ত ও এক অস্ত্র কারবারীকে গ্রেপ্তার করেছে হীরাপুর থানার পুলিশ। কেউ কেউ বলছেন, সম্ভবত  সেই আনন্দে থানায় এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন ওই এসআই। পুলিশ মহলেরই অন্য অংশের আবার ধারণা, কয়েক দিন আগেই চিত্তরঞ্জন থানায় বদলি হয়েছেন অভিযুক্ত এসআই। থানায় তাঁর বিদায় সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। সেখানে এমনই উদ্দাম নৃত্য করেছেন এসআই কৃষ্ণপদ মণ্ডল।
 

 


মন্তব্য