kalerkantho


ঘুমিয়ে আছেন উপস্থাপিকা, এ কী করলেন মার্কিন সিনেটর!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ নভেম্বর, ২০১৭ ০৯:০৮



ঘুমিয়ে আছেন উপস্থাপিকা, এ কী করলেন মার্কিন সিনেটর!

হলিউডের পর এবার মার্কিন রাজনৈতিক অঙ্গনেও যৌন হয়রানির অভিযোগ আসছে। সম্প্রতি ডেমোক্র্যাট দলের সিনেট সদস্য আল ফ্রাঙ্কেনের বিরুদ্ধে ঘুমন্ত অবস্থায় এক উপস্থাপিকাকে স্পর্শ ও জোর করে চুমু খাওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

গত বৃহস্পতিবার রেডিও উপস্থাপিকা লিয়েন টুয়েডেন লস অ্যাঞ্জেলস স্টেশন কেএবিসির ওয়েবসাইটে এ অভিযোগ করেন। খবর রয়টার্স। উপস্থাপিকা লিয়েন টুয়েডেন জানান, ২০০৬ সালের ডিসেম্বরে মধ্যপ্রাচ্যে থাকা মার্কিন সৈন্যদের বিনোদন দিতে একটি দল পাঠানো হয়েছিল। সেই দলের সদস্য ছিলেন লিয়েন ও ফ্রাঙ্কেন। তখনই সিনেট সদস্য আল ফ্রাঙ্কেন লিয়েনের ওপর যৌন নির্যাতন চালান। ফ্রাঙ্কেন তখনো রাজনীতিতে আসেননি। তিনি ছিলেন কৌতুক অভিনেতা।
এক হোঁচটের দাম ৬৩ কোটি!
লিয়েন জানান, ওই ট্যুরের এক অনুষ্ঠানের চিত্রনাট্য লিখেছিলেন ফ্রাঙ্কেন, যেখানে দুজনের চুমু খাওয়ার দৃশ্য ছিল। লিয়েন বলেন, আমি তার উদ্দেশ্য নিয়ে সন্দেহ করেছিলাম, যদিও ভেবেছিলাম মঞ্চে চুমু খাওয়ার সময় শেষ মুহূর্তে আমি মাথা সরিয়ে নেব কিংবা তার মুখ হাত দিয়ে ঢেকে দেব, যা আরো বেশি কৌতুককর হবে। কিন্তু অনুষ্ঠানের আগেই ফ্রাঙ্কেন এ দৃশ্যটি রিহার্সেল করতে জোর করতে থাকেন। কুয়েতে ওই অনুষ্ঠানের আগে করা রিহার্সেলের মধ্যেই ফ্রাঙ্কেন তাকে জোর করে চুমু খান বলে অভিযোগ লিয়েনের। এমনকি সে সফর থেকে ফেরার পথে সামরিক বাহিনীর বিমানে ঘুমন্ত অবস্থায় ফ্রাঙ্কেন তার স্তনেও হাত দেন। লিয়েন আরো বলেন, ফের আক্রান্ত হলাম। বিব্রত, ছোট, অপমানিত লাগছিল তখন।

সম্প্রতি এ-সংক্রান্ত একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করেছেন লিয়েন। যেখানে ফ্রাঙ্কেনকে বোকা বোকা ভাব নিয়ে ক্যামেরার দিকে তাকানো অবস্থায় লিয়েনের স্তনে হাত দিতে দেখা যাচ্ছে। তবে লিয়েনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অ্যাকাউন্টটির সত্যতা নিশ্চিত করতে পারেনি রয়টার্স। এদিকে এ ঘটনার জন্য দুঃখপ্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন ডেমোক্রেট সিনেটর আল ফ্রাঙ্কেন। জোর করে চুমু খাওয়ার কথা স্মরণ করতে না পারলেও বিমানের ঘটনা মজা করার জন্য করেছিলেন বলেও দাবি তার।

তিনি বলেন, লিয়েনের কাছে আন্তরিকভাবে ক্ষমা প্রার্থনা করছি। ছবিতেই দেখা যাচ্ছে মজা করার জন্য তা করা হচ্ছিল, যদিও এটা আমার উচিত হয়নি। যৌন হয়রানির এ অভিযোগের পর সিনেটর আল ফ্রাঙ্কেনকে পদ ছেড়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন রিপাবলিকান দলের নেতা সারাহ পলিন। আলাবামায় তার দলের সিনেট প্রার্থী রয় মুরের বিরুদ্ধে একাধিক নারীর যৌন হয়রানির অভিযোগের ব্যাপারে এক সংবাদ সম্মেলনে কথা বলতে এসে পলিন এ আহ্বান জানান।


মন্তব্য