kalerkantho


২৫০ বছর পরে জার্মানিতে মিলল বাইসন, এরপর গুলি করে হত্যা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৮:৪৪



২৫০ বছর পরে জার্মানিতে মিলল বাইসন, এরপর গুলি করে হত্যা!

ছবি অনলাইন

জার্মানিতে বিগত ২৫০ বছরে কোনো ইউরোপীয় বন্য বাইসন দেখা যায়নি। এত বছর পর, সম্প্রতি পূর্ব জার্মানির শহর লেবাস-এর একটি বনে একজন এই প্রথম বন্য বাইসন দেখেন।

তবে আশ্চর্যের বিষয়, এ প্রাণীটিকে স্বাগত জানানো হয়নি সেখানে।

কর্তৃপক্ষ যখন এ বাইসনটির অবস্থানের খবর জানতে পারে তখনই তাকে স্থানীয় জনসাধারণের জন্য বিপজ্জনক বলে গণ্য করে। ফলে পরের দিনই দুজন শিকারিকে নিয়োগ করা হয় সে প্রাণীটি হত্যা করার জন্য। শিকারির গুলি করে মেরে ফেলে জন্তুটিকে।

লেবাস শহরটি পোল্যান্ড সীমান্তে অবস্থিত। শহরের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া ওডার নদী ও এর পলিতে গড়ে ওঠা বনের ভেতর দিয়ে যাওয়ার সময় প্রত্যক্ষদর্শী এক ব্যক্তি দেখেন বাইসনটি নদীর ধারে ঘাস খাচ্ছে।

বুধবার ওই ব্যক্তি বাইসনের উপস্থিতি সম্পর্কে স্থানীয় কর্তৃপক্ষকে জানান। তিনি হয়ত জানতেন না যে, কী করতে চলেছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।

কিন্তু ঠিক তার পরের দিন, জনসাধারণের জন্য বিপদজনক উল্লেখ করে বাইসনটিকে মেরে ফেলার নির্দেশ দেন ব্র্যান্ডেনবার্গ প্রদেশের পাবলিক অর্ডার অফিসের প্রধান।

প্রাণীটিকে হত্যা করায় ‘দ্য ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ডলাইফ ফান্ড’ স্থানীয় কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে। প্রায় বিলুপ্ত প্রাণীটিকে গুলি চালানো একটি ‘দণ্ডনীয় অপরাধ’ উল্লেখ করে, কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করে দিয়েছে প্রাণী সংরক্ষণের জন্য কাজ করে যাওয়া সংগঠনটি।

সূত্র : ফক্স নিউজ


মন্তব্য