kalerkantho


গাঁজরের পরনে ১৩ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া বিয়ের আঙটি!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ আগস্ট, ২০১৭ ১৫:০৩



গাঁজরের পরনে ১৩ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া বিয়ের আঙটি!

১৩ বছর আগে বিয়ের আঙটি হারিয়ে ফেলেছিলেন মেরি গ্রামস। এই অস্ট্রেলিয়ার নারীর বয়স এখন ৮৪ বছর।

হীরার আঙটির কোনো খোঁজই মিলল না। কিন্তু হঠাৎ করেই খুঁজে পেলেন ওটাকে। কেউ চুরি করেনি। অদ্ভুতভাবে পাওয়া গেলো ওটাকে। অবিশ্বস্য হলেও সত্য, এটা গাঁজরের পরনে রয়েছে আঙটিটি! 

সম্ভবত বাগানে পরে গিয়েছিল ওটা। টেরই পাননি তিনি। বাগানেই খুঁজে পেলেন। দেখলেন ওটার ভেতর দিয়ে একটি গাঁজর ওটার মধ্য দিয়ে ঢুকে গেছে। আসলে কচি অবস্থাতেই গাঁজরটি ওটার মধ্য দিয়ে ঢুকে গেছে।

পরে বড় হয়ে কি অবস্থা হয়েছে তা ওপরের ছবিতেই দেখতে পাচ্ছেন।  

মেরি জানান, আঙটিটি তিনি সেই ১৯৫১ সাল থেকে হাতে পরে রয়েছেন। ২০০৪ সালে আলবার্তার আরমেনার কাছে পারিবারিক খামারে হারিয়ে ফেলেন ওটা। দারুণ দুঃখ পেয়েছিলেন মনে। ভয়ে অবশ্য কাউকে বলেননি। শুধু ছেলে জানতো তার। ভাবছিলেন স্বামীকে বলে হুবহু আরেকটা আঙটি কিনে নেবেন। কিন্তু ২০১২ সালে ৬০তম বিবাহবার্ষিকীর মাসেই তার স্বামী মারা যান।  

এ সপ্তাহেই তার ছেলের বউ কোলেন ডালে ওটার খোঁজ পেয়েছেন। তিনি ওই খামারেই থাকেন। ক্ষেত্রের গাঁজরগুলোর দেখভাল করতে গিয়েই তিনি ওটা খুঁজে পেয়েছেন। পরে জানান, এমন দৃশ্য আমি কখনই কল্পনা করতে পারিনি। গাঁজরটি ওই আঙটির মধ্য দিয়েই বেড়ে উঠেছে। দেখলে মনে হয়, একটি মোটাসোটা আঙুলের মাঝে আঁটোসাঁটো হলে লেগে রয়েছে আঙটিটি। পরে আমি আমার স্বামীকে দেখিয়ে বলি, এই আঙটিটা চিনতে পারছো? সে উত্তর দেয় যে ওটা তার মায়ের বিয়ের আঙটি।  

অবশেষে জীবনের কিছু মধুর স্মৃতি জড়িয়ে থাকা আঙটিটা ফিরে পেলেন গ্রামস। বললেন, এটা যে আবার আমার হাতে আসবে ভাবতেই পারিনি।  
সূত্র : এমিরেটস 


মন্তব্য