kalerkantho


২৫ বার পুলিশকে ভুয়া ফোন এরপর...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ জুলাই, ২০১৭ ১১:৩৭



২৫ বার পুলিশকে ভুয়া ফোন এরপর...

ছুটিতে বাড়িতে বসে ভীষণ একঘেয়ে লাগছিল। কী করবে বুঝেই উঠতে পারছিল না ওরা।

মাথায় দুষ্টু বুদ্ধি খেলে গেল হঠাৎ। পুলিশকে ফোন করলে কেমন হয়! যেমন ভাবা তেমন কাজ। পুলিশকে ২৫ বার ভুয়া ফোন করে ফেলল দুই ভাই। এমনই এক ঘটনা ঘটেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের ফুলশিয়ারে।

তবে তাদের এমনতরো মজা করাটা যে এক্কেবারে ঠিক হয়নি, তা বুঝতেও পেরেছে এই দুই দস্যি। ভুয়া ফোন করার পর দুই ভাই ক্ষমা চেয়ে পুলিশকে চিঠিও লেখে। চিঠিতে দুই ভাই জানিয়েছে, তারা তাদের ভুলের জন্য ক্ষমাপ্রার্থী। এবং তাদের যেন কোনো ভাবেই জেলে পাঠানো না হয়!

গোটা ঘটনাটি সম্পর্কে এক্কেবারে ওয়াকিবহাল ছিলেন না তাদের মা। বিষয়টি যখন জানতে পারেন তখন তাঁর দুই ছেলেকে দিয়ে পুলিশের উদ্দেশে একটি চিঠি লেখান তিনি।

এবং সেই চিঠিটি ফুলশিয়ার পুলিশের কাছেও দিয়ে আসেন। চিঠিটি পড়ে ফুলশিয়ার পুলিশ একটুও বিব্রত হয়নি। বরং খুব মজা লাগে তাদের। চিঠিটি তৎক্ষণাৎ ফেসবুকে পোস্ট করেন তাঁরা।

গত ৮ জুলাই ফুলশিয়ার পুলিশ বিভাগের ফেসবুকে দুই ভাইয়ের হাতে লেখা চিঠিটি পোস্ট করা হয়। সঙ্গে জানানো হয়, স্কুলপড়ুয়া দুই ভাই তাদের মায়ের সঙ্গে থানায় এসেছিল। দুই ভাইয়ের ছোট ছোট হাত দিয়ে লেখা ক্ষমাপ্রার্থনা অবশ্য স্বীকার করেছে পুলিশ। ফুলশিয়ার পুলিশ বিভাগের তরফে ফেসবুকে জানানো হয়েছে, ‌আমরা সকলে ভুল করি, ভুল করতে করতেই আমরা সঠিক বিষয়টা শিখতে পারি।

পুলিশের কাছে চাওয়া দুই ভাইয়ের আন্তরিক এই ক্ষমা সোশাল নেটওয়ার্কে সকলের মন জয় করেছে। ‌আমরা ভেবেছিলাম এটা খুব মজার ব্যাপার হবে। পুলিশকে ফোন করে ভুল বাড়িতে পাঠিয়ে দেব এবং পুলিশ ভাববে ফোনটা তারাই করেছে। এটা করার একটাই কারণ ছিল, তখন আমার ঘুমোতে একটুও ইচ্ছা করছিল না। ‌- এমনটাই চিঠিতে লিখেছিল একজন।

অন্য ভাইয়ের লেখা চিঠি
আরেকজন লেখে, ‌দয়া করে আমাকে ক্ষমা করে দিন। আমি জেলে না যাওয়ার জন্য সব কিছু করব। আমি কথা দিচ্ছি এ ধরনের কাজ আর করব না। আমি জেলে নয়, বাড়িতে থাকতে চাই।

 


মন্তব্য