kalerkantho


শিকারীদের হাতে মারা পড়ল এক বিরল দানবাকৃতি হাতি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ মার্চ, ২০১৭ ১৩:০২



শিকারীদের হাতে মারা পড়ল এক বিরল দানবাকৃতি হাতি

আফ্রিকার সবচেয়ে বয়স্ক এবং বৃহদাকারের যে ক'টা হাতি বেঁচে রয়েছে, তাদের একটিকে মেরে ফেলা হয়েছে। কেনিয়ার ওই হাতিটি প্রাণ হারায় অবৈধ প্রাণী শিকারীদের হাতে। এই বিশাল প্রাণীগুলোর দেখভাল করে এমন একটি সংগঠন এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

কেনিয়ার প্রাণী সংরক্ষণ বিষয়ক একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান সাভো ট্রাস্টের মুখপাত্র রিচার্ড মলার জানান, হাতিটির নাম সাতাও দ্বিতীয়। ২০১৪ সালে তার মতোই আরেক দানব ও বয়স্ক হাতিকে হত্যা করা হয়েছিল। সেই হাতিটির নামেই এর নামকরণ করা হয়েছে। সাতাওকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, বিষাক্ত তীর ছুড়ে তাকে মারা হয়। তবে এখনো নিশ্চিক করে মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে বলা হয়নি। এটা দারুণ দুঃখজনক ঘটনা। কিন্তু সৌভাগ্যক্রমে পোচাররা তার আইভরি নিতে পারেনি।

এর জন্য কেনিয়ান ওয়াইল্ডলাইফ সার্ভিস (কেডাব্লিউএস) ব্যাপক সহায়তা করেছে।

ধারণা করা হয়, হাতিটার বয়স ৫০ বছরের মতো হবে। সাভো ন্যাশনাল পার্কেই তার ছিল বিচরণ। এখানকার সবাই তাকে দারুণ ভালোবাসতেন। তাৎক্ষণিকভাবে তদন্ত শুরু না হলেও দুজন অবৈধ শিকারীকে সন্দেহের তালিকায় রাখা হয়েছে। এর ঠিক দুই দিন আগেই কেডাব্লিউএস এর এক কর্মকর্তা পোচারবিরোধী অভিযানে নিহত হয়েছেন।

ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচার (আইইউসিএন) জানায়, আফ্রিকার হাতির সংখ্যা গত এক যুগে ৪ লাখ ১৫ হাজার থেকে এক লাখ ১১ হাজারে নেমে এসেছে। এর মধ্যে অবৈধ শিকারীদের হাতি নিধনের পাঁয়তারা একটুও কমতে দেখা যায়নি। প্রতিবছর তাদের হাতে প্রায় ৩০ হাজারের মতো হাতির মৃত্যু ঘটে। এশিয়ায় হাতির দাঁত বা আইভরির ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।

বিশাল আকারের দাঁতের হাতি এই পৃথিবীতে খুব বেশি নেই। সংখ্যায় মাত্র ২৫। এদের মধ্যে ১৫টি রয়েছে কেনিয়াতে। এরা হাতি প্রজাতির আইকন, এরা বিলুপ্তির পথে বলে জানান মোলার।

মৃত সাতাও দ্বিতীয় এর দুটো দাঁতের একটির ওজন ৫১ কেজি ৫০০ গ্রাম, আরেকটির ওজন ৫০ কেজি ৫০০ গ্রাম।

সাভো ইকোসিস্টেম ৪২ হাজার বর্গ কিলোমিটার জুড়ে অবস্থান করছে। এই বিশাল এলাকায় সুষ্ঠুভাবে টহল দেওয়াটাই কেডাব্লিউএস এর জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। সূত্র : এমিরেটস

 


মন্তব্য