kalerkantho


গুগলে সার্চ করে মৃত্যুর সন্ধানে সুন্দরী তরুণী, এরপর......

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ মার্চ, ২০১৭ ১০:৩৭



গুগলে সার্চ করে মৃত্যুর সন্ধানে সুন্দরী তরুণী, এরপর......

ব্রেক আপ, সম্পর্কে ছেদ! তারপর অনেকেই মৃত্যুর পথ বেছে নেয়। উত্তর প্রদেশের সাহারণপুরের ২৪ বছরের তরুণীও ঠিক করেছিল সে আত্মঘাতী হবে যমুনা নদীর ব্রিজ থেকে ঝাঁপ দিয়ে।

তবে ঝাঁপ দেওয়ার মুহূর্তেই তার মনে দ্বিতীয় চিন্তার উদয় হয়। সে ঠিক করে সহজ পদ্ধতিতে আত্মহত্যা করবে। এ জন্যই সে গুগলের দ্বারস্থ হয়। তবে গুগলে সার্চ করার সঙ্গে সঙ্গেই তার কাছে বেশ কিছু অপশন আসে। সেই অপশন থেকেই সে স্থানীয় থানার পুলিশ কর্মকর্তার সঙ্গে কথাবার্তা বলে।

যিনি তাকে সফলভাবে মৃত্যুর পথ থেকে সরে দাঁড়ানোর ব্যাপারে বোঝাতে সমর্থ হন। তিনিই তাকে পাঠান আসরা নামক এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থায়। যারা আত্মহননের পথ থেকে জীবনের মূলস্রোতে ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করে। স্থানীয় থানার ডিআইজি জিতেন্দ্র কুমার সাহনি পরে বলছিলেন, জানুয়ারি মাসের ৩ তারিখে নিজের মোবাইলে একটি ফোন পাই আমি।

ফোনের অপর প্রান্তে ছিল একজন তরুণী, যে নার্ভাস হয়ে আত্মঘাতী হওয়ার কথা বলছিলেন। তড়িঘড়ি আমি ওকে নিজের অফিসে ডেকে পাঠাই।

পুলিশ কর্মকর্তার কাছে নিজের কাহিনী তুলে ধরেন সেই তরুণী। কি হয়েছিল? বেশ কয়েকবছর ধরে একজনের সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন সেই তরুণী। তবে সম্প্রতি সরকারি চাকরি পেয়ে যাওয়ার পর গার্লফ্রেন্ডকে অ্যাভয়েড করছিলেন তিনি। পরিবারের চাপে অন্যত্র বিয়েতেও রাজি হয়ে যান। তারপরই আত্মহননের সিদ্ধান্ত। কার্যত ট্রমায় চলে যাওয়া সেই তরুণীকেই ক্যারিয়ার কাউন্সেলিংয়ে পাঠিয়ে নতুন জীবন দেন সেই পুলিশ কর্মকর্তা।

 


মন্তব্য