kalerkantho


সাবধান, এই আয়নায় বাস করে কম করে ১০ প্রেতাত্মা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১২:৩২



সাবধান, এই আয়নায় বাস করে কম করে ১০ প্রেতাত্মা!

এই খামারবাড়ির মূল আকর্ষণ হল একটি আয়না। আজ পর্যন্ত এই আয়নাটিকে নাকি ঢেকে রাখা যায়নি।

এমনিতেই খ্যাতি রয়েছে ভূতুড়ে বাড়ি হিসেবে। তার উপরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের লুইজিয়ানার সেন্ট ফ্রান্সভিলের মির্টলেস প্ল্যান্টেসনের আদত বদনাম একটি বিশেষ আয়নার জন্য। গণবিশ্বাস, এই আয়নায় কম করে ১০টি প্রেতাত্মার বাস। আর এই লিজেন্ডে ভয় পাওয়া দূরে থাক, উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে পর্যটকদের ভিড়।

১৭৯৬ সালে মার্কিন গৃহযুদ্ধের বহু আগেই এই খামারবাড়িটি তৈরি করেন জেনারেল ডেভিজ ব্র্যাডফোর্ড। কথিত রয়েছে, এই খামারটি আসলে এক রেড ইন্ডিয়ান গোরস্থানের উপরে তৈরি। তার উপরে নাকি অন্ততপক্ষে ১০টি হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয় এই বাড়িতে। কিন্তু সত্যি বলতে খোঁজ মেলে একটি মাত্র খুনেরই। উইলিয়াম উইন্টার নামের এক প্ল্যান্টার খুন হন এই বাড়ির সিঁড়ির ১৭ নম্বর ধাপে।

তার পর থেকে নাকি এই ধাপটিতে উইলিয়ামের আবছা প্রেতাত্মাকে দেখা যায়।

এখানেই শেষ নয়। এই খামারবাড়ির মূল আকর্ষণ হল একটি আয়না। আজ পর্যন্ত এই আয়নাটিকে নাকি ঢেকে রাখা যায়নি। এই আয়নাতেই রয়েছে কম করে ১০টি প্রেতাত্মার বাস। সময় ও সুযোগ বুঝে তারা বেরিয়ে আসে। শোনা যায়, অনেক দর্শকই নাকি এই আয়না-ভূতের খপ্পরে পড়েছেন। অন্য মত অনুযায়ী, এই আয়নার বাসিন্দা সারা উড্রফ নামের এক মহিলা এবং তাঁর দুই শিশুসন্তানের।

উড্রফদের মৃত্যুর পরে আয়না ঢেকে না রাখাতেই নাকি এউ বিপত্তি। তার পর থেকে খোলা পড়ে থাকা আয়না থেকে ভেসে আসে সারা ও তাঁর বাচ্চাদের আর্তি। মাঝে মাঝেই দেখা যায় ওই আয়নায় ছোট শিশুর হাতের ছাপ। শত বেদনা, বহু কষ্টের কাহিনি আজ পল্লবিত মির্টলেস প্ল্যান্টেসন-কে ঘিরে। তবে এই মুহূর্তে এই খামারবাড়ি বিপুল পরিমাণ পর্যটক টানে। কতজন সত্যিকারের ভুত দেখেছেন, সেই খবর অবশ্য পাওয়া যায়নি।

 


মন্তব্য