kalerkantho


ফ্রিজে কাঁচা ডিম রাখার বিপদ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১১:০৭



ফ্রিজে কাঁচা ডিম রাখার বিপদ

সুস্থ সবল দেহের জন্য খাদ্যতালিকায় ডিম অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। কিন্তু সেই কাঁচা ডিম ফ্রিজে রাখলে মারাত্মক ভুল করা হবে।

কেননা ডিমের যাবতীয় গুণ চলে যায় ফ্রিজের ঠাণ্ডায়। সেই ডিম খেলে নেতিবাচক প্রভাব পড়ে শরীরে।

সকালে ডিমসিদ্ধ হোক বা দুপুরের খাবারে ঝাল ঝাল ডিমের তরকারি, টিফিনে ডিমের ওমলেট হোক বা এগ চাউমিন- এসব নাম শুনে জিভে জল আসে না, এমন কেউ নেই বললেই চলে। ডিম মানে একটা অন্য ব্যাপার। এটি খেতে যেমন ভালো, শরীরের জন্যও উপকারী। কারণ, শরীরে যাচ্ছে প্রচুর প্রোটিন আর ভিটামিন। বাজার থেকে ডিম আসছে বাড়িতে। তারপর তা ঢুকে যাচ্ছে সোজা ফ্রিজে। দিনের পর দিন কাঁচা ডিম থাকছে ফ্রিজবন্দি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সাধারণত একটি ডিমে ১৩টি প্রয়োজনীয় ভিটামিন ও খনিজ পদার্থ থাকে। এতে ছয় গ্রাম অত্যন্ত উচ্চমাত্রার প্রোটিন থাকে। ডিম যে কোনও মানুষের খাদ্যাভাসের সুষম আহার বলেই বিবেচিত হয়। কিন্তু ফ্রিজে দিনের পর দিন কাঁচা ডিম রাখার রেওয়াজ ছাড়ার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

বিশেষজ্ঞদের মতে, কাঁচা ডিমের মধ্যে থাকা খাদ্যগুণ নষ্ট করে দেয় ফ্রিজের ঠাণ্ডা। ডিমের মধ্যে বেশ কিছু খনিজ পদার্থ থাকে যা আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো। ফ্রিজের ঠাণ্ডা ওই খনিজ পদার্থকে অকেজো করে দেয়। ডিমের মধ্যে থাকা অ্যাক্টিভ এনজাইম যা ঠাণ্ডায় নষ্ট হয়ে যায়। ঠাণ্ডায় ডিম রাখলে তার মধ্যে ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের প্রবণতা বাড়ে। সেই ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণে টাইফয়েডে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা অনেকটাই বেড়ে যায়। ঠাণ্ডা ডিমের জন্য গ্যাসট্রোএনটেরেটিস ও ফুড পয়জনিংয়ের প্রবণতা বেড়ে যায়।

 


মন্তব্য