kalerkantho


সাবধান : আপনার টয়লেটে এমন সাপ নেই তো!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৪:০৪



সাবধান : আপনার টয়লেটে এমন সাপ নেই তো!

সকালে কমোডে বসার আগে সাবধানে ভালোভাবে দেখে তবেই বসুন। কারণ বিষধর সাপের এক ছোবলেই ছবি হয়ে যেতে পারেন আপনিও। এর আগে থাইল্যান্ডে কমোডে বসে পুরুষাঙ্গে পাইথনের কামড় খেতে হয়েছিল এক ব্যক্তিকে।
রোজ সকালে যখন কমোডে বসেন, পেট পরিষ্কার হওয়া ছাড়া অন্য কোনো চিন্তা কি আপনাকে গ্রাস করে? সাবধান হোন, না হলে শেষবারের মতো বসতে হতে পারে।
এমন কী বিপদ লুকিয়ে রয়েছে সাধারণ কমোডে? এর আগে থাইল্যান্ডে কমোডে বসে পুরুষাঙ্গে পাইথনের কামড় খেতে হয়েছিল এক ব্যক্তিকে।

সাম্প্রতিক ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে। একটি কমোডের মধ্যে দেখা পাওয়া গেল বিষধর র‌্যাটল স্নেকের। তার পরে খোঁজাখুজি করতেই বাড়ির ভেতর থেকে আরও ২৩টি বিষাক্ত র‌্যাটল স্নেকের সন্ধান পাওয়া গেল।

আমেরিকার সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, গত ২৬ জানুয়ারি বাড়ির কমোডের মধ্যে থেকে একটি র‌্যাটল স্নেককে উঁকি মারতে দেখে ওই পরিবারটির সদস্যরা। আতঙ্কিত পরিবারটির সম্বিত ফিরতে ফিরতেই সেটি ঘরের মেঝের ওপর বেরিয়ে আসে। সাপের হিস হিস শব্দে ততক্ষণে পরিবারটির আত্মারাম খাঁচাছাড়া হওয়ার উপক্রম।

আতঙ্কে সাপটিকে মেরে ফেলে ওই পরিবার।

এরপর অবশ্য সাপ ধরার কাজ করা স্থানীয় একটি সংস্থাকে ডেকে আনে ওই পরিবারটি। তারাই তল্লাশি চালিয়ে বাড়ির ভেতর থেকে আরও ২৩টি র‌্যাটল স্নেক উদ্ধার করে। তার মধ্য বাচ্চা থেকে শুরু করে চার, পাঁচ ফুট লম্বা পূর্ণবয়স্ক সাপও ছিল।

যে সংস্থাটি এই সাপগুলো উদ্ধার করে, তাদের কর্ণধারও ঘটনার কথা সোশাল মিডিয়ায় জানিয়েছেন। তার দাবি, পাইপের একটি ফাটা অংশ দিয়ে সাপটি কমোডের মধ্য ঢুকে পড়েছিল।
সূত্র : এবেলা


মন্তব্য