kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কফি পানের ৫ ক্ষতি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ অক্টোবর, ২০১৬ ১৯:৪৬



কফি পানের ৫ ক্ষতি

সকাল কিংবা সন্ধ্যায়, অফিসে কিংবা আড্ডায় কফি পান করতে পছন্দ করেন অনেকেই। দ্রুত শরীরকে চাঙ্গা করতে কফির জুড়ি নেই।

কফিতে প্রধান উপাদান ‘ক্যাফেইন’ স্নায়ুকে উদ্দীপ্ত করে কর্মক্ষমতা বাড়ায়। প্রতিদিন নির্দিষ্ট পরিমাণে কফি খেলে সমস্যা নেই। কিন্তু কফি খাওয়া নেশায় পরিণত হলে তা উপকারের বদলে ক্ষতি ডেকে আনে। তেমনি ৫টি পার্শপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কে জেনে নিন:

১. প্রতিদিন সকালে খালি পেটে কফি খেলে পাকস্থলীতে হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড তৈরি হতে পারে। এই ধরনের অ্যাসিড খাবার পরিপাকে ব্যবহৃত হয়। পাকস্থলীতে প্রচুর পরিমাণে হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড থাকলে খাবারের পরিপাক দ্রুত গতিতে হয়। ফলে বদহজম সহ নানা ধরনের পেটের সমস্যা হতে পারে।

২. কফির বীজে ক্যাফেইন ও অন্যান্য অম্লীয় উপাদান থাকে যা পাকস্থলীর গায়ে ক্ষত সৃষ্টি করে আলসার, গ্যাসট্রিকের সমস্যা বাড়িয়ে দিতে পারে।

৩. কফির পরিমাণ বেশি হলে কিডনিতে এই ব্যাপক প্রভাব পড়তে পারে। এতে কিডনির স্বাভাবিক কার্যক্ষম ব্যহত হতে পারে।

৪. উচ্চ তাপমাত্রায় কফির বীজ থেকে কফি তৈরির সময়ে এতে ক্যান্সারের প্রভাব বিস্তারকারী উপাদান তৈরি হতে পারে। তাই অতিরিক্ত পরিমাণে কফি খেলে ক্যান্সারের সম্ভাবনাও বৃদ্ধি পায়।

৫. কফি খেলে শরীরে কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পেলেও এটি স্নায়ুদতন্ত্রের উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। দীর্ঘদিন ধরে একটানা প্রচুর পরিমাণে কফি খেলে স্বাভাবিক উদ্দীপনাও নষ্ট হতে পারে।


মন্তব্য