kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কেমন ব্যক্তিত্বের মানুষ কোন ধরনের পেশায় সফল হয়ে ওঠেন?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ অক্টোবর, ২০১৬ ২০:৩০



কেমন ব্যক্তিত্বের মানুষ কোন ধরনের পেশায় সফল হয়ে ওঠেন?

মানুষের ব্যক্তিত্ব অনুযায়ী ভিন্ন ভিন্ন চাকরি রয়েছে। এ বিষয়টি নিয়ে যুগ যুগ গবেষণা করে যাচ্ছে আমেরিকার বড় বড় প্রতিষ্ঠানগুলো।

এ বিষয়টি বুঝতে তারা মায়ার্স ব্রিগস টাইপ ইন্ডিকেটর (এমবিটিআই) নামের পার্সোনালিটি টেস্ট করে।

এর মাধ্যমে মানুষের ১৬ ধরনের ব্যক্তিত্ব খুঁজে পেয়েছে। চারটি বৈশিষ্ট্যের ভিত্তিতে মানুষের ব্যক্তিত্ব বিচার করা হয়। আমেরিকার ৮০ শতাংশ প্রতিষ্ঠান এই পদ্ধতিতে কর্মীদের ব্যক্তিত্ব বাছাই করে। এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানগুলো ব্যক্তিত্ব বুঝে বিশেষ কাজে কর্মী বাছাই করে। একই পদ্ধতিতে আপনিও জেনে নিন, কোন ধরনের কাজের জন্য আপনি যোগ্য। দুই ধরনের ভাগ এনেছে তারা। একটি ইএসটিজে এবং আইএসটিপি।  

আইএসটিজে বিভাগে রয়েছেন এক্সট্রোভার্ট, সেন্সর, থিঙ্কার এবং জাগার।

এক্সট্রোভার্ট : এ ধরনের মানুষরা অন্যদের মাধ্যমে প্রাণশক্তিপূর্ণ হয়ে ওঠেন। বিভিন্ন ধরনের কাজ পছন্দ করেন এবং একযোগে একাধিক কাজে পারদর্শী।

সেন্সর : তারা বাস্তববাদী হয়ে থাকেন। তারা বাস্তবতা ও বিস্তারিত তথ্যের ভিত্তিতে কাজ করতে পছন্দ করেন। অতীতের অভিজ্ঞতা ও সাধারণ জ্ঞানের ব্যবহারে কাজ করেন।

থিঙ্কার : যৌক্তিক বিশ্লেষণের মাধ্যমে তারা কাজ করেন। সুবিধা-অসুবিধার কথা চিন্তা করেন। সততা ও স্বচ্ছতার মাধ্যমে কাজ করতে চান।

জাগার : তারা পূর্ব প্রস্তুতির ভিত্তিতে কাজ করেন। সবকিছু গুছিয়ে পরিকল্পনা করে কাজে নামেন।

আইএনএফপি দিয়ে বোঝায় ইন্ট্রোভার্ট, ইনটিউটিভ, ফিলার এবং পারসিভার্স।

ইন্ট্রোভার্ট : এরা একা কাজ করতে পছন্দ করেন। ছোট দলে থাকতে চান। কাজে মনোযোগ দিতে পছন্দ করেন।

ইনটিউটিভ : তারা সম্ভাবনা খুঁজে বের করতে চান। বড় চিত্রটাই দেখতে চান। পদ্ধতিগুলোও সহজে বের করে আনেন।

ফিলার : এরা সহযোগী ও স্পর্শকাতর হয়। মূল্যবোধ নিয়ে কাজ করেন। অন্যরা যেনো ক্ষতিগ্রস্ত না সেদিকে খেয়াল রাখেন।

পার্সিভার : তারা মতামত উন্মুক্ত রাখেন। স্বতঃস্ফূর্তভাবে কাজ করেন।

এখানে দেখুন, বিভিন্ন ধরনের ব্যক্তিত্বসম্পন্ন কর্মীদের মিশ্রণে কি ধরনের ব্যক্তিত্বের বৈশিষ্ট্য রয়েছে এবং তাদের জন্য কি ধরনের চাকরি সুবিধাজনক তার সম্পর্কে জেনে নিন।

ইএসটিজে : এরা বাস্তববাদি ও বাস্তবমুখী সিদ্ধান্ত নেন। সমাজের সঙ্গে তারা ভালোভাবে কাজ করতে পারে। ইন্স্যুরেন্স সেলস এজেন্ট, ফার্মাসিস্ট, আইনজীবী, বিচারক এবং প্রজেক্ট ম্যানেজারের কাজে ভালো তারা।

আইএসটিজে : কঠোর পরিশ্রমী এবং তারা দায়িত্ব নিয়ে বেশ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সবার আড়ালে থেকে তারা বড় বড় কাজে আস্থাভাজন। অডিটর, অ্যাকাউনটেন্ট, চিফ ফিনানসিয়াল অফিসার এবং ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কাজে পারদর্শী।

ইএসএফজে : অন্যদের সহায়তা করতে পারেন দক্ষতার সঙ্গে। সমাজে অন্যদের সুবিধা বুঝে কাজ করে যান। সেলস রিপ্রেজেন্টিটিভ, নার্স, সোশাল ওয়ার্কার, পিআর অ্যাকাউন্ট এক্সিকিউটিভ এবং লোন অফিসারের কাজ তাদের দিয়ে ভালো হয়।

আইএসএফজে : বিনয়ী এবং অন্যদের সহায়তা করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। অন্যদের সেবা প্রদানের কাজে তারা বেশ ভালো। তাদের হওয়া উচিত ডেন্টিস্ট, এলিমেন্টারি স্কুল শিক্ষক, লাইব্রেনিয়ান, ফ্রাঞ্চাইজের মালিক ও কাস্টমার সার্ভিস রিপ্রেজেন্টিটিভ।

ইএসটিপি : রোমাঞ্চপ্রিয় তারা। সমস্যার মাঝে কাজ এগিয়ে নিয়ে পটু। তারা বেশ উৎসপূর্ণ। তারা হতে পারেন গোয়েন্দা, ব্যাংকার, বিনিয়োগকারী, বিনোদন এজেন্ট এবং স্পোর্টস কোচ।

আইএসটিপি : তারা সৎ ও সরাসরি কথা বলতে চান। আলাপচারিতার মাধ্যমে অনেক সমাধান আনতে পারেন। যন্ত্রের ব্যবহারে তারা বেশ ভালো। সিলিভ ইঞ্জিনিয়ার, ইকোনমিস্ট, পাইলট এবং ডেটা কমিউনিকেশন অ্যানালিস্ট এবং ইমার্জেন্সি ফিজিশিয়ান হিসাবে তারা বেশ ভালো কাজ করতে পারেন।

ইএসএফপি : তারা সাধারণ জ্ঞানের ওপর নির্ভর করেন। বেশ মজা করে কাজ করতে পছন্দ করেন। তারা উন্মুক্ত হতে পছন্দ করেন এবং অন্যদের সঙ্গে মিশতেই পছন্দ করেন। চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কাউন্সিলর, প্রাইমারি কেয়ার ফিজিশিয়ান, অভিনয়শিল্পী এবং ইন্টেরিয়ন ডিজাইনার হিসাবে তারা ভালো কাজ করেন।

আইএসএফপি : তারা বেশ উষ্ণ এবং স্পর্শকাতর হয়ে থাকেন। যেসব কাজে সহানুভূতি ও মনোযোগ দরকার সেসব কাজে তারা দক্ষ। এ ধরনের মানুষ ফ্যাশন ডিজাইনার, ফিজিক্যাল থেরাপিস্ট, ম্যাসাজ থেরাপিস্ট, ল্যান্ডস্কেপ আর্কিটেক্ট এবং স্টোরকিপার হিসাবে ভালো করেন।

ইএনটিজে : এরা প্রকৃতিগতভাবেই নেতা হয়ে ওঠে। যুক্তিবোধসম্পন্ন, বিশ্লেষক, কৌশলী পরিকল্পনাকারী হিসাবে তারা ভালো। এ জন্য এক্সিকিউটিভ, আইনজীবী, মার্কেট রিসার্চ অ্যানালিস্ট, ম্যানেজমেন্ট কনসালটেন্ট এবং ভেঞ্চার ক্যাপিটালিস্ট হিসাবে তারা ভালো কাজ করেন।

আইএনটিজে : সৃষ্টিশীল হয়ে থাকেন। নিজস্ব উপায়ে কাজ করতে পছন্দ করেন। সমাজের বাইরে থেকেও কাজ করেন তারা। তত্ত্ব ভালো বোঝেন। ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংকার, পারসোনাল ফিনানসিয়াল অ্যাডভাইজর, সফটওয়্যার ডেভেলপার, ইকোনমিস্ট এবং এক্সিকিউটিভ।

ইএনএফজে : তারা মানুষ পছন্দ করেন। প্রাণশক্তিপূর্ণ ও কূটনীতিতে ভালো। যৌক্তিক কাজে পারদর্শী। এরা অ্যাডভার্টাইজিং এক্সিকিউটিভ, পাবলিক রিলেশন স্পেশালিস্ট, কর্পোরেট কোচ বা প্রশিক্ষক এবং সেলস ম্যানেজার হিসাবে ভালো কাজ করতে পারেন।

আইএনএফজে : চিন্তাশীল ও সৃষ্টিশীল মানুষ। প্রাতিষ্ঠানিক নীতিমালার মধ্যে থেকে সততার সঙ্গে কাজ করে যান। সবার আড়ালে থেকে কাজ করতে পারেন সফলতার সঙ্গে। এরা থেরাপিস্ট, কাউন্সিলর, সোশাল ওয়ার্কার, অর্গানাইজেশনাল ডেভেলপমেন্ট কনসালটেন্ট, কাস্টমার রিলেশন্স ম্যানেজার হিসাবে ভালো করেন।

ইএনটিপি : চ্যালেঞ্জ পছন্দ করেন। সৃষ্টিশীলও হয়ে থাকেন। ঝুঁকিপূর্ণ কাজ করতে ভালো লাগে তাদের। উদ্যোক্তা, রিয়েল এস্টেট ডেভেলপার, অ্যাডভার্টাইজিং ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর, মার্কেটিং ডিরেক্টর, রাজনীতিবিদ হিসাবে তারা ভালো করেন।

আইএনটিপি : স্বাধীনভাবে কাজ করতে ভালোবাসেন। সমস্যার সমাধানে বেশ সৃষ্টিশীল। এমন কাজে তাদের দরকার হয় যেখানে তারা মূল্যবান হয়ে ওঠেন। কম্পিউটার প্রোগ্রামার, সফটওয়্যার ডিজাইনার, ফিনানসিয়াল অ্যানালিস্ট, আর্কিটেক্ট, কলেজ প্রফেসর এবং ইকোনমিস্ট হিসাবে দক্ষ হয়ে ওঠেন তারা।

ইএনএফপি : আত্মবিশ্বাসী ও আগ্রহী তারা। যেকোনো জায়গায় সম্ভাবনা খুঁজে পান। এমন কাজে ভালো যেখানে সাবধানতা দরকার। এ ছাড়া যোগাযোগ সৃষ্টিতেই পটু হতে হবে। সাংবাদিক, অ্যাডভার্টাইজি ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর, কনসালটেন্ট, রেস্টুরেন্ট ব্যবসা ও ইভেন্ট প্ল্যানার হিসাবে তারা দক্ষ।

আইএনএফপি : তারা চিন্তাধারায় স্পর্শকাতর। মূল্যবোধ তাদের প্রভাবিত করে। তারা সহমর্মী হতে পারেন। সহনশীলতাও অনেক বেশি। এমন মানুষরা গ্রাফিক ডিজাইনার, মনোবিজ্ঞানী, লেখক, ফিজিক্যাল থেরাপিস্ট এবং এইচআর ডেভেলপমেন্ট ট্রেইনার হিসাবে দক্ষ হয়ে ওঠেন। সূত্র : বিজনেস ইনসাইডার

 


মন্তব্য