kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


লং জার্নিতে বমিভাব? কী করবেন?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ অক্টোবর, ২০১৬ ১৪:২৫



লং জার্নিতে বমিভাব? কী করবেন?

ছুটি পেলেই লং জার্নিতে যেতে পছন্দ করেন অনেকেই। কিন্তু সমস্যা হয়ে দাঁড়ায় বমিভাব।

হ্যাঁ, গাড়িতে চড়লে অনেকেই বমির সমস্যায় ভুগেন। ভ্রমণের মাঝে এমন বমি বমি লাগলে তো আনন্দটাই মাটি। তবে কিছু ব্যপারে সচেতন হলেই এই সমস্যা থেকে দূরে থাকা যায়। জেনে নিন…

১. গাড়িতে ওঠার আগে ঝাল-মশলাযুক্ত খাবার, কোমল পানীয় বা চিপস ইত্যাদি খাবেন না। যারা বমির সমস্যায় ভোগেন তারা প্রয়োজনে হালকা কিছু খেয়ে গাড়িতে উঠুন। যাত্রাপথে ভারী খাবার না খাওয়াই ভালো।

২. অতিরিক্ত ঘ্রাণ বা সুগন্ধযুক্ত খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। ভ্রমণের সময় সাথে পানি রাখুন এবং পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করুন। দারু চিনি, লবঙ্গ ও টক জাতীয় খাবার বমিভাব দূর করে। যাত্রাপথে এগুলো সাথে রাখতে পারেন।

৩. ট্রেন, বাস বা গাড়ি যেদিক মুখ করে সামনে এগুচ্ছে তার উলটো দিক ফিরে কখনোই বসবেন না। এতে বমিভাব আরো বেশি হয়। গাড়ি যেদিকে যাচ্ছে সেদিকে মুখ করে বসুন।

৪. বাসে কিংবা গাড়িতে পেছনের দিকের সিটে বসার ব্যাপারে সতর্ক থাকুন। পেছনের দিকে সিটে ঝাঁকুনি বেশি লাগে যা অনেক সময় বমির কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

৫. ভ্রমণের সময় ধূমপান করবেন না। পান-সুপারি এবং অন্যান্য নেশা জাতীয় দ্রব্যও এড়িয়ে চলুন।

৬. চলন্ত অবস্থায় বই পড়া, মোবাইলে গেম খেলা বা নেট ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। এর ফলে সমস্যা বেড়ে যেতে পারে।

৭. ভ্রমণের সময় মনকে শান্ত ও প্রফুল্ল রাখার চেষ্টা করুন। বমি হতে পারে এই কথা ভুলে থাকুন। মনকে প্রফুল্ল রাখতে গান শুনতে পারেন।

৮. যাত্রাপথে অন্য যাত্রীকে বমি করতে দেখে অনেকের বমি হতে পারে। তাই যাত্রীদের দিক থেকে মনোযোগ সরিয়ে অন্য দিকে মনোযোগ দিন। এক্ষেত্রে জানালার পাশে বসে বাইরের সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারেন।

৯. সমস্যা খুব বেশি হলে যাত্রা শুরু আগে বমি নিরোধক ট্যাবলেট খেয়ে নিতে পারেন। তবে যেকোন ওষুধ সেবনের আগে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ করে নিন।


মন্তব্য