kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ভাইকিং ও প্রাচীন কৃষিজীবীদের সঙ্গে হাজার বছর আগেই বিশ্বভ্রমণ করে বিড়াল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৬:১৫



ভাইকিং ও প্রাচীন কৃষিজীবীদের সঙ্গে হাজার বছর আগেই বিশ্বভ্রমণ করে বিড়াল

পোষা বিড়ালের ইতিহাস এতদিন ছিল ধোঁয়াশায় পরিপূর্ণ। কিন্তু সাম্প্রতিক এক গবেষণায় সে ধোঁয়াশা কেটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ফক্স নিউজ।
বিড়ালের জেনেটিক বিশ্লেষণ করে সম্প্রতি গবেষকরা জানতে পেরেছেন তাদের অতীতে নানা স্থান ভ্রমণের তথ্য। আর এ থেকেই তারা ধারণা করছেন ভাইকিং ও কৃষকদের সঙ্গে বিড়ালও বিশ্বভ্রমণ করেছে।
প্রাচীনকালে গৃহপালিত বিড়ালের বিশ্বভ্রমণের দুটি রুটের সন্ধান পেয়েছৈন গবেষকরা। এর একটি মধ্যপ্রাচ্য থেকে শুরু করে ভূমধ্যসাগরের পূর্ব অঞ্চলে অভিগমন করে বিড়াল। এ সময় মূলত কৃষকদের সঙ্গেই বিড়াল এ অভিগমন করে।
অন্য একটি রুট হলো মিশর থেকে শুরু করে ইউরেশিয়া ও আফ্রিকা অঞ্চলে অভিগমন। এক্ষেত্রে গবেষকরা প্রাচীন মিশরে বিড়ালের ধর্মীয় গুরুত্ব, মমি করা ও অন্যান্য বিষয়কেও তুলে ধরেছেন।
বেশ কিছুদিন ধরেই গবেষকরা এ বিষয়ে তাদের অনুসন্ধান কার্যক্রম পরিচালনা করেন। এতে তারা বিভিন্ন অঞ্চলের পোষা বিড়ালের ডিএনএ অনুসন্ধান করেন এবং তাদের মাঝে যোগসূত্রের সন্ধান পান।
গবেষকরা জানান, তারা মূলত প্রাচীন বিড়ালদের ২০৯টি মমির নমুনা এ গবেষণায় কাজে লাগিয়েছেন।   গবেষণাটির ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে সপ্তম আন্তর্জাতিক বায়োমলিকুলার আর্কিওলজি সিম্পোজিয়ামে। এটি ১৪ থেকে ১৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত  অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির মিউজিয়াম অব ন্যাচারাল হিস্টোরিতে অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গবেষকরা জানান, বিড়ালের সঙ্গে মানুষের প্রাচীণ সভ্যতার একটি যোগসূত্র পাওয়া যায়। যেমন সাইপ্রাসে সাড়ে নয় হাজার বছর আগের এক কবরেও পাওয়া গেছে বিড়ালের মৃতদেহ। সেখানে মানুষের সঙ্গে একটি বিড়ালও কবরস্থ করা হয়েছিল। এছাড়া প্রায় চার হাজার বছর আগের বিড়ালের মমিও রয়েছে মিশরে। এছাড়া প্রাচীন মিশরে রয়েছে শুধু পোষা প্রাণীদের কবরস্থান, যেখানে প্রচুর বিড়ালের কবর রয়েছে। চীনে ৫৩০০ বছর আগেও বিড়াল পোষার ইতিহাস রয়েছে।
গবেষকরা বিভিন্ন প্রাচীন বিড়ালের অস্থি পরীক্ষা করে সেগুলোর প্রচুর ভুট্টা খাওয়ার প্রমাণ পেয়েছেন। এ থেকে তারা ধারণা করছেন, সে বিড়াল কৃষকের সঙ্গেই থাকত- শিকারী নয়।
ভাইকিংদের সঙ্গেও বিড়াল ভ্রমণ করার প্রমাণ পেয়েছেন গবেষকরা। জার্মানির নিকটবর্তী এলাকার ভাইকিংদের স্থাপনায় একটি বিড়ালের দেহাবশেষের ডিএনএ পরীক্ষা করে দেখা গেছে সেটি মিশরীয় প্রজাতির বিড়াল, যেটি বেঁচে ছিল ৭০০ থেকে ১০০০ খ্রিস্টাব্দে। গবেষকরা অনুমান করছেন, জাহাজের ইঁদুর দূর করতে বিড়ালটি হয়ত জাহাজেই রাখা হয়েছিল।


মন্তব্য