kalerkantho


ডয়চে ভেলের প্রতিবেদন

খাওয়ার পর ক্লান্ত লাগে কেন?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২০:১৪



খাওয়ার পর ক্লান্ত লাগে কেন?

পেট ভরে খাওয়ার পর মানুষের তো ভালো লাগার কথা, তাই না? কিন্তু অনেককেই উলটোটা বলতে শোনা যায়৷ অর্থাৎ খাওার পরপরই ক্লান্ত লাগে তাদের৷ কিন্তু কেমন এমন হয়? এ অবস্থায় কী বা করবেন? জেনে নিন ছবিঘর থেকে৷

দুপুরেই বিছানা?
অনেকেরই দুপুরে খাওয়ার পর আবারো কাজে মনোযোগ দিতে গেলে শুধুই ঘুম পায়৷ চোখ দু’টোকে তখন যেন আর কিছুতেই খোলা রাখা যায় না৷ মাত্র কয়েকটা মিনিটের জন্য হলেও বিছানায় গড়িয়ে নেওয়ার ইচ্ছে জাগে! যারা চাকরি করেন, তাদের অনেকেই এই অনুভূতির সাথে বেশ পরিচিত৷

কেন এমন হয়?
খাওয়ার পর সেই খাবারকে বিভক্ত করে লিভারের কাছে পৌঁছে দিতে অন্ত্রের অনেক বেশি রক্তের প্রয়োজন হয়, যে কারণে রক্তের ওপর বেশি চাপ পরে৷ ফলে তখন রক্তচাপ কমে গিয়ে শরীর ক্লান্ত বোধ করে এবং ঘুম পায়৷ তাছাড়া মানুষের শরীরের প্রতিটি অঙ্গের আসলে দিনে ও রাতে – দু’বার বিশ্রামের প্রয়োজন হয়৷

আধ ঘণ্টার বেশি নয় কিন্তু!
যাদের দুপুরে ঘুমানোর সুযোগ আছে, তাদের ঘুমিয়ে নেয়াটাই শ্রেয়৷ তবে সেটা যেন আধ ঘণ্টার বেশি না হয়৷ কারণ সুস্থ মানুষ দিনেরবেলায় বেশিক্ষণ ঘুমালে বা বিশ্রাম নিলে তরতাজা নয়, বরং ক্লান্তই লাগে৷ তাছাড়া দুপুরের ঘুম, মানে যাকে আমরা ‘ভাত ঘুম’ বলি, মোটা হওয়ার ভয়টাও থেকে যায়৷ এ তথ্য জানান ডা. ইয়র্গ ফ্রাংকে৷

মুক্ত বাতাসে হাঁটুন
যারা চাকরি করেন, তারা ঘুম কাটাতে কয়েক মিনিট মুক্ত বাতাসে হাঁটতে পারেন৷ দেখবেন, এই ‘ব্রিস্ক ওয়াকিং’ ওষুধের মতো কাজ করবে৷ এতে ক্লান্তি যেমন দূর হবে, তেমনি তরতাজা ভাবও বেড়ে যাবে কয়েকগুণ৷

দুপুরে কী খাবেন?
দুপুরে অবশ্যই খেতে হবে, কিন্তু তাই বলে ভারী মাংস বা চর্বিযুক্ত খাবার একেবারেই নয়! দুপুরের খাবারের তালিকায় বরং প্রচুর সালাদ, সবজি এবং স্যুপের মতো হালকা খাবার রাখবেন৷ এতে রক্ত ও অন্ত্রের ওপর চাপ কম পরবে, অর্থাৎ সহজেই হজম হবে খাবার৷ ফলে ‘টায়ার্ড’ বা ক্লান্তও লাগবে না৷

‘ব্রেইন ফুড’ বা পাওয়ার স্ন্যাকস
সারাদিন গড়ে শরীরের যে শক্তি খরচ হয়, তার পাঁচ ভাগের এক ভাগ খরচ হয় মস্তিষ্কের জন্য৷ অফিসে কাজ করার সময় মনোযোগে ব্যাঘাত ঘটলে অনেকেই চট করে চকলেট বা মিষ্টি জাতীয় কিছু খেয়ে নেন, যা অল্প সময়ের জন্য শক্তি জোগায়৷ তবে সবচেয়ে ভালো হয় দুপুরে যদি শসা, মূলা, টমেটো, সালাদ বা ফল দিয়ে ঘরে তৈরি স্যান্ডউইচ খান৷ এতে পেট যেমন ভরবে, তেমনি আপনি থাকবেন ফিট ও সজাগ৷


মন্তব্য