kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মাত্র ২৮টি ওয়েবসাইটে সীমাবদ্ধ উত্তর কোরিয়ার ইন্টারনেট!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৫:৪২



মাত্র ২৮টি ওয়েবসাইটে সীমাবদ্ধ উত্তর কোরিয়ার ইন্টারনেট!

উত্তর কোরিয়ার মানুষরা ইন্টারনেটের দুনিয়ায় কিভাবে বিচরণ করেন তার সম্পর্কে কোনো ধারণাই ছিল না কারো। সম্প্রতি গিটহাব খেয়াল করে যে, উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ সার্ভারগুলো দুর্ঘটনাক্রমে গ্লোবাল ডিএনএস জোন ট্রান্সফার গ্রহণ করেছে।

এরই বদৌলতে বোঝা গেছে তারা কিভাবে ইন্টারনেট ব্যবহার করে।

এক প্রতিবেদনে বলা হয়, উত্তর কোরিয়ার মানুষরা মাত্র ২৮টি ওয়েবসাইটে ঢুঁ মারার সুযোগ পান। গুগল ট্রান্সলেটের মাধ্যমে এদের ইংরেজি করে দেখানো হয়েছে। দেখে নিন তারা কি কি ওয়েবসাইট ব্যবহার করে।

১. এয়ার কোরইয়ো : অভ্যন্তরীন এবং আন্তর্জাতিক ভ্রমণের জন্য একটি ফ্লাইট টিকিট ওয়েবসাইট।

২. কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ এজেন্সি : একটি সংবাদমাধ্যম যা রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত। কোরিয়ান, ইংরেজি, স্পেনিশ এবং জাপনিজ ভাষায় এটি প্রচারিত হয়।

৩. কোরিয়ান পিপল টোটাল ইন্স্যুরেন্স কম্পানি : রাষ্ট্রীয় ইন্স্যুরেন্সের খবর পেতে এই ওয়েবসাইট।

৪. কোরিয়ান অ্যাসোসিয়েশন অব কুকস : রিসিপিসহ খাবার বিষয়ক ওয়েবসাইট।

৫. কোরিয়ান ইন্টারন্যাশনাল ইয়ুথ অ্যান্ড চিলড্রেন ট্রাভেল কম্পানি : তরুণদের জন্য একটি ট্রাভেল কম্পানি।

৬. ফ্রেন্ড : ফেসবুকের মতো একটি সোশাল মিডিয়া প্লাটফর্ম বলে মনে করা হয়। তবে রেডিট ব্যবহারকারী 'শের্ম'  এবং নর্থ কোরিয়া টেক জানায়, এটা সাংস্কৃতিক সম্পর্ক বিষয়ক একটি কমিটি।

৭. নায়িনারা : এখানে সবাই উত্তর কোরিয়ার কয়েকটি অফিসিয়াল ভাষাকে ইংরেজিতে দেখতে পান।

৮. ন্যাশনাল ইউনিটি : নর্থ কোরিয়া টেক জানায়, এটি পিয়ংইয়ক ব্রডকাস্টিং স্টেশন। তাদের ভাষার একটি রেডিও স্টেশন।

৯. মেরিটাইম অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অব কোরিয়া : উত্তর কোরিয়ার মেরিটাইম আইনের তালিকা রয়েছে এতে। এ ছাড়া জলপথের ভ্রমণ সংক্রান্ত তথ্য দেওয়া রয়েছে।

১০. কোরিয়া ট্যুরিজম : নর্থ কোরিয়ার ট্যুরিজমের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট।

১১. কোরিয়ান অ্যাসোসিয়েশন অব সোশাল সায়েন্টিস্টস : ছোট এবং বড়দের শিক্ষামূলক ওয়েবসাইট যেখানে তারা কোর্স করতে পারেন।

১২. কোরিয়া এডুকেশন ফান্ড : এটা দেশটির এডুকেশন ফান্ড যার মাধ্যমে শিক্ষার গুণগত মান বৃদ্ধি করা হয়।

১৩. ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল : পিয়ংইয়ং ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের ওয়েবসাইট।

১৪. কোরিয়া এল্ডারলি কেয়ার ফান্ড : একটি চ্যারিটির ওয়েবসাইট।

১৫. কিম ২ সাং ইউনিভার্সিটি : পিয়ংইয়ংয়ের বিশ্ববিদ্যালয়টির ওয়েবসাইট।

১৬. রোডোং : ওয়ার্কার্স পার্ট অব কোরিয়ার সেন্ট্রাল কমিটির সংবাদপত্রের হোমপেজ এটি।

১৭. স্পোর্টস চোসান : উত্তর কোরিয়ার ক্রীড়া জগতকে তুলে ধরা হয় এর মাধ্যমে। ২০১৬ সালের রিও অলিম্পিকে কাভারেজ দেয় এই সাইট।

১৮. ভয়েস অব কোরিয়া : আন্তর্জাতিক শর্টওয়েভ ব্রডকাস্টার। এটা খবর ও বুলেটিন প্রচার করে।

এখানে আরো ১০টি ওয়েবসাইট রয়েছে যাদের সম্পর্কে জানা যায়নি। তবে তাদের ঠিকানা দেখে নিন।

১৯.  http://rcc.net.kp

২০.  http://rep.kp

২১. http://portal.net.kp

২২. http://masikryong.com.kp

২৩. http://silibank.net.kp

২৪. http://star-co.net.kp

২৫.  http://star-di.net.kp

২৬.  http://star.co.kp

২৭.  http://star.edu.kp

২৮. http://star.net.kp
সূত্র : হাফিংটন পোস্ট

 


মন্তব্য