kalerkantho

সোমবার । ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ । ৮ ফাল্গুন ১৪২৩। ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮।


শিশুদের সৌন্দর্য অনুভব করে না মাদকাসক্তরা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৭:২৯



শিশুদের সৌন্দর্য অনুভব করে না মাদকাসক্তরা

এক সর্বনাশা নেশা হেরোইন। আমেরিকার একটি ছবি তো রীতিমতো সোরগোল তুলেছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, এক গাড়িতে নারী হেরোইনের অতিরিক্ত ডোজ নিয়ে অচেতন হয়ে আছেন। পাশে বসে রয়েছেন তারই বন্ধু যিনি নিজেই হেরোইন নিয়ে অচেতন। ওই গাড়ির পেছনের সিটে অসহায়ের মতো বসে রয়েছে তার নাতী। নতুন এক গবেষণায় বলা হয়, শিশুদের মাঝে যে সুন্দর শিশুসুলভ বিষয় প্রকাশিত হয়, হেরোইনে আসক্তদের তা দৃষ্টিগোচর হয় না।

ওহিওর পুলিশ এ ছবি প্রকাশের পর ৫০ বছর বয়সী রন্ডা প্যাসেককে জেলে পাঠিয়েছেন আদালত। গোটা বিশ্বের মানুষকে নাড়া দিয়েছে ছবিটি। এ বছরের ৭ সেপ্টেম্বর ছবিটি প্রকাশ করে ইস্ট লিভারপুল পুলিশ ডিপার্টমেন্ট। রন্ডার বন্ধু জেমস অ্যাকোর্ড। আদালত শিশুটির দায়িত্ব নিয়েছে।

শিশুদের সরলতা এমন যে বড়রা তাদের প্রতি দায়িত্বশীল হয়ে ওঠেন। কিন্তু হেরোইনের মতো মাদকগুলো এমন যে তা অন্যের প্রতি খেয়াল রাখার বিষয়টিকে ব্যাপকভাব প্রভাবিত করে। তাই শিশুদের শিশুসুলভ সৌন্দর্য প্রভাব ফেলে না ওপিওয়েড বা সংশ্লিষ্ট উপাদান গ্রহণকারীদের মস্তিষ্কে, জানান ইউনিভার্সিটি অব পেনসিলভেনিয়ার প্রফেসর ড্যানিয়েল ল্যাংলেবেন।  

মানুষ কিংবা অন্য প্রাণীর শিশুটিকে সবাই পছন্দ করে। কারণ শিশুদের মাঝে স্বর্গীয় ভাব ও অনুভূতি রয়েছে। তাদের কোমল চোখ, মুখ, নাক বা চেহারা সবাইকেই আকৃষ্ট করে। তাদের প্রতিচ্ছবিই আমরা সুন্দর সুন্দর পুতুল বা কার্টুনে ফুটিয়ে তোলা হয়।

এ গবেষণায় গবেষকরা ৪৭ জন প্রাপ্তবয়স্ককে বাছাই করেন যারা সবাই ওপিওয়েড গ্রহণ করেন। তাদের ওপিওয়েড ব্লকার হিসাবে নালট্রেক্সোন দেওয়া হয়। আরো দেখা হয়, শিশুদের কোমলতা ও সৌন্দর্যে তাদের প্রতিক্রিয়া কেমন। এ ক্ষেত্রে মস্তিষ্কে এফএমআরআই স্ক্যান করা হয়।

ব্লকার ব্যবহারের আগেদেখা গেছে, শিশুদের সরলতা তাদের মনে কোনো প্রভাব ফেলে না। কিন্তু ব্লকার ব্যবহারের পর তারা অনেকটা স্বাভাবিক মানুষের মতোই আচরণ করেন। ওপিওয়েড জাতীয় উপাদান যারা ব্যবহার করেন, সৌন্দর্যে প্রতিক্রিয়াশীল মস্তিষ্কের অংশটি কাজ করে না বলে জানান ল্যাংলেবেন।

ইউরোপিয়ান কলেজ অব নিউরোসাইকোফার্মাকোলজি কংগ্রেসে উপস্থাপন করা হয় এ গবেষণা প্রতিবেদন। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

 


মন্তব্য