kalerkantho

শুক্রবার । ২ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ডয়চে ভেলের প্রতিবেদন

যেসব খাবার কখনো নষ্ট হয় না

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৯:৫৯



যেসব খাবার কখনো নষ্ট হয় না

খাবার-দাবার বেশি দিন রাখতে গেলেই চলে আসে দুশ্চিন্তা – নষ্ট হয়ে যাবে না তো? তখন বারবার মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ দেখেন সবাই৷ তবে এমন কিছু খাবার আছে যা অনায়াসে ১০, ২০ অথবা ৩০ বছরও নিশ্চিন্তে রেখে দিতে পারেন৷

মধু
খাঁটি মধু নাকি কখনো নষ্ট হয় না৷ ফুলের রেণু আর মৌমাছির শরীরের এক ধরনের ‘এনজাইম’ মিশে থাকার কারণেই নাকি মধুতে কখনো ব্যাকটিরিয়া বাসা বাঁধতে পারে না৷

সাদা চাল
অক্সিজেনমুক্ত কোনো জায়গায় চার ডিগ্রি বা তার চেয়ে কম তাপমাত্রায় সাদা চাল রেখে দিলে, ৩০ বছরেও নাকি সেই চালের স্বাদ, গন্ধ বা খাদ্যগুণের কোনো হেরফের হয় না৷ তবে বাদামি চাল এতদিন টেকে না৷ এ ধরনের চালে তেল থাকে বলে এগুলো বড়জোর ছয় মাস পর্যন্ত একেবারে ঠিক থাকে৷

লবণ
ঠিকভাবে রাখতে পারলে লবণেরও কয়েক বছরে অন্তত কিছুই হয় না৷ আর সে কারণে অনেক সময় পচনশীল অনেক বস্তুর পচন রোধ করতে লবণ ব্যবহার করা হয়৷ তবে আয়োডিনযুক্ত লবণ বা নুন কিন্তু বড়জোর পাঁচ বছর ঠিক থাকে৷

সয়া সস
ভালো সয়া সস প্যাকেট না খুললে অনেক বছরেও নষ্ট হয় না৷ সয়া সসেও লবণ থাকে আর সেই লবণের গুণেই তা পচতে ভুলে যায়!

চিনি
‘এয়ারটাইট’ কোনো পাত্রে চিনি, বিশেষ করে গুঁড়ো চিনি রাখলে, সেই চিনিও বহুবছর থাকে৷

শুকনো বাদাম
শুকনো বাদাম বা শিমের বিচিও অক্সিজেনমুক্ত স্থানে রাখতে পারলে তা ৩০ বছরও ঠিক থাকতে পারে৷

সাদা ভিনেগার
গবেষকরা বলছেন, সাদা ভিনেগারও বহুবছর ঠিক থাকে৷

ভ্যানিলা
দামি, ভালো ভ্যানিলা যত্ন করে রাখলে ১০-২০ বছরে অন্তত একটুও নষ্ট হয় না৷ ভ্যানিলায় অ্যালকোহল থাকে৷ আর সে কারণেই তা সহজে নষ্ট হয় না৷


মন্তব্য