kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


হারিয়ে যাওয়া কিছু 'অদ্ভুত' খাবার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৬:৫৫



হারিয়ে যাওয়া কিছু 'অদ্ভুত' খাবার

মানুষের জীবনের সবচেয়ে প্রভাবশালী বিষয়ের একটি তার প্লেটের খাবারগুলো। অতীতেও রাজা-বাদশাহরা তার সাম্রাজ্যের খাবার আর সূক্ষ্ম মসলার কারুকাজের স্বাদে মুগ্ধ ছিলেন তারা।

সেলিব্রিটি শেফ আদিত্য ব্যাল জানান, খাদ্য তালিকায় নানা অদ্ভুত রেসিপি রয়েছে। তিনি একটি অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন যেখানে হারিয়ে যাওয়া রেসিপির সন্ধান করা হয়। এখানে তিনি জানাচ্ছেন এমনই কিছু অদ্ভুত রেসিপির কথা। এগুলো এখন দেখাই যায় না। এসবই ভারতের এক সময়ের জনপ্রিয় খাবার। কিন্তু এখন হারিয়ে গেছে। আপনাদের কাছেও এ ধরনের খাবার বেশ পরিচিত ঠেকতে পারে।

১. টমেটোর হালুয়া : মিষ্টি ও ঝাঁঝালো স্বাদ অন্য অনুভূতি দেবে। এর রং দারুণ। নান্দনীকতার ছোঁয়া রয়েছে। দুধ, ক্লারিফাইড বাটার এবং বাদাম দিয়ে তৈরি খাবারটি দক্ষিণ ভারতে ব্যাপক জনপ্রিয়।

২.  জুন্নু : অন্ধ্র প্রদেশের সুস্বাদু এক খাবার। এটা এক ধরনের ডেজার্ট। এটা বানাতে দুধ দেয়া গবাদিপশুর প্রথম দিনের দুধ ব্যবহার করা হয়। ক্রিমপূর্ণ খাবারটি দারুণ পুষ্টিকর।

৩. রসুনের ক্ষীর : প্রায় অবিশ্বাস্য বলে মনে হয়। রসুনের মতো কটূ গন্ধের একটি খাবারের আবারো ক্ষীরও হয়? অনেকদিন এই ক্ষীরের রেসিপি গোপন ছিল। একে তখন বেনামী ক্ষীর বলে ডাকা হতো। ফিটকিরির পানির ব্যবহারে প্রস্তুতকৃত রসুনের ক্ষীর আজ হারিয়ে গেছে।

৪. বুরানি রাইটা : হায়দারাবাদের খাবার। নিজামি কিচেনের বিশেষ রেসিপি। দইয়ে রসুনের মিশ্রণে রাইটা তৈরি করা হয়।

৫. পেঁয়াজের ক্ষীর : হায়দারাবাদের রান্নায় এক সময়ের ঐতিহ্য। রাতের খাবারের পর ডেজার্ট হিসাবে সরবরাহ করা হতো। শেফ আদিত্য এর রেসিপি খুঁজে বের করেছেন। সাদা পেঁয়াজ কয়েকবার ধোয়া হয়। এদের জ্বাল দেওয়া হয় দুধে। আগুনে দুধ ধীরে ধীরে ঘন হয়ে আসতে থাকে। এক সময় দুধ ও পেঁয়াজ উভয় থেকে মিষ্ট স্বাদ বেরিয়ে আসে।

৬. মাখন মালাই : লক্ষ্নৌ বা দিল্লিতে 'দৌলত কি চাট' নামে সুপরিচিত। দুধের মাখন পূর্ণিমায় এটি বানানো হয়। শীতকালে বেশ জনপ্রিয় খাবার।

৭. গোস্ত হালুয়া : মাংসের কিমা, চিনি, মাখন এবং বাদাম দিয়ে এটি বানানো হয়। উত্তর প্রদেশের একটি হারিয়ে যাওয়া রেসিটি। এর ইতিহাস সম্পর্কে তেমন জানা যায়নি। দিল্লিতে এক সময় বেশ জনপ্রিয় ছিল। অদ্ভুত স্বাদের জন্যে এক সময়ের বিখ্যাত খাবার। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

 


মন্তব্য