kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বুঝেসুঝে ধার দিন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১১:০৮



বুঝেসুঝে ধার দিন

বন্ধুদের সঙ্গে হাসি মসকরায় ব্যস্ত। ঠিক সেই সময়েই কিছু সমস্যা জানিয়ে কেউ হাত পেতে বসল।

না বলবেন তার উপায়ও নেই সবাই আপনার দিকে তাকিয়ে। তাই ভদ্রতা করে কিছু টাকা ধার দিলেন। ধার তো দিলেন, ফেরত পাবেন তো?‌ কাকে ধার দেবেন, কাকে দেবেন না। তা অবশ্যই আপনার ব্যাপার। তবে ধার দেওয়ার আগে বেশ কিছু বিষয় ভেবে দেখতে পারেন। তাতে সম্পর্কও ভাল থাকবে আবার পস্তাতেও হবে না।  

❏ ‌প্রথমেই মনে রাখবেন গুরু বচন 'অপাত্রে দান নয়’'। যাঁকে দিচ্ছেন জেনে নিন তাঁর ধার করার অভ্যাস আছে কিনা। আর টাকা নিলে ফেরত দেন কিনা। যদি তিনি ফেরত না দেওয়ার লোক না হন তবে দিচ্ছি-দেব করে এড়িয়ে যান।

❏ বড় অংকের টাকা হলে চুক্তি করে নিন। যত কাছের মানুষই হোক, চুক্তির কথাটা তাঁকে জানান। টাকা সম্পর্কের অবনতি ঘটাতে পারে। সে রকম হলে চুক্তি দেখিয়ে টাকা উদ্ধারে আদালতে যান।

❏ ধার দিয়ে কখনও সুবিধা আশা করবেন না। ধার দিলেও মানবিকতা বলে একটা বিষয় মাথায় রাখবেন। উপকার করছেন বলে মাথা কিনে নিয়েছেন ভাববেন না। কেননা বন্ধু বা নিকটাত্মীয়ের প্রয়োজন হয়েছে বলেই ধার নিয়েছেন। এই অবস্থায় অন্যায্য সুবিধা নিলে তার ফল মারাত্মক হতে পারে। ধার মেটালেও পুরানো রাগ পুষে রাখতে পারেন তিনি।

❏ হয়ত কেউ আর্থিক সাহায্য চাইছেন। তবে আপনি দেখলেন টাকা না দিয়েও তাঁকে কিছু পরামর্শ দিলে সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। খরচ কমানোর পথ দেখাতে পারেন। ঠিক করে জেনে নিন তাঁর কি ধরনের প্রয়োজন। যদি দেখেন ইলেকট্রিক বিল বা অন্য কিছু দিতে পারছে না। তা হলে ধার নয়, আপনি ওটা মিটিয়ে দিন। আরে, নিঃস্বার্থ বলেও তো একটা ব্যাপার আছে তো না কী?‌ 

❏ না বলা অভ্যাস করুন। মনে রাখবেন একবার ধার দিলে সে খবর ছড়িয়ে পড়বে। বার বার কত আর ধার দেবেন। তাই 'না' বলা অভ্যাস করুন। ‌
সূত্র : আজকাল


মন্তব্য