kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বিরতিহীন যৌনমিলন ডেকে আনতে পারে মৃত্যু!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৮:৫৮



বিরতিহীন যৌনমিলন ডেকে আনতে পারে মৃত্যু!

যৌবন হলো পরিশ্রমের সময়। জীবনকে উপভোগের সময়।

এসময় শরীর যে কোনো কিছুই মানিয়ে নিতে পারে। তাই নিয়মিত যৌনমিলনে কোনো সমস্যা হয়না। কিন্তু বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যৌনতায় লাগাম টানতে হয়। মেয়েদের ক্ষেত্র যৌন ইচ্ছা বয়সের সাথে সাথে কমে গেলেও পুরুষদের কমে না। তাই বিপদ পুরুষদেরই বেশি।

আধুনিক গবেষণা বলছে, পঞ্চাশোর্ধ বয়সে কেউ যদি প্রতিদিন সঙ্গমে লিপ্ত হয়, তাহলে তার হৃদরোগের সম্ভাবনা বেশি। যৌবন পার করা পুরুষ যদি দৈনিক কিংবা সাপ্তাহিক সঙ্গমে অভ্যস্ত হন, তাহলে সেই পুরুষের হৃদরোগের শঙ্কা বেশি। এমনটাই মত দিয়েছে মিশিগান স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়য়ের গবেষকরা। তবে পূর্ব উল্লিখিত কারণেই পঞ্চাশোর্ধ্ব মহিলাদের ক্ষেত্রে যদিও নিয়মিত সঙ্গমে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা কম।

গবেষক হুই লিউ তার গবেষণা প্রতিবেদন বলেছেন, “তুলনামূলক বয়স্করা যদি তাদের সঙ্গীর সঙ্গে যৌনতায় শারীরিক তৃপ্তি অনুভব করেন এবং সন্তুষ্ট হন, সেক্ষেত্রে কার্ডিওভাসকুলার রোগে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা তাদের সবথেকে বেশি। ”

৫৭ থেকে ৮৫ বছরের ২ হাজার ২০৪ জনের ওপর এই গবেষণা করা হয়েছিল। আমেরিকার ন্যাশনাল সোশ্যাল লাইফ এবং হেলথ অ্যান্ড অ্যাজিং প্রোজেক্ট এই গবেষণাকে প্রত্যক্ষভাবে সহযোগিতা করেছে। দীর্ঘ সময়ের এই গবেষণায় দেখা গেছে যাদের মধ্যে যৌনতার মাত্রা বেশি ছিল তাদেরই পরবর্তী সময়ে হৃদরোগ দেখা দিয়েছে।

চিকিৎসকরা বলছেন পঞ্চাশোর্ধ পুরুষরা প্রতিনিয়ত কিংবা সাপ্তাহিক যৌনতায় আবদ্ধ হলে তাদের শরীরের স্বাভাবিক রক্তচাপ তুলনামূলকভাবে বৃদ্ধি পায় যা তাদের হৃদপিণ্ডে প্রভাব ফেলে। আর অতিরিক্ত চাপে হার্ট অ্যাটাকের মত মৃত্যু সঙ্কটের সম্মুখীন হন তারা। গবেষণা বলছে প্রতিনিয়ত যৌনসঙ্গম না করে যদি মাসিক রুটিন ফলো করে যৌনসঙ্গম করা হয় তাহলে তুলনামূলকভাবে শারীর অনেক বেশি সুস্থ থাকে।  


মন্তব্য