kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কেমন ছিল তাদের প্রথম দিনের ‘অভিজ্ঞতা’?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২০:০৫



কেমন ছিল তাদের প্রথম দিনের ‘অভিজ্ঞতা’?

কর্মক্ষেত্রের প্রথম দিনটা নিশ্চয়ই অন্য দিন গুলোর চেয়ে আলাদা। অচেনা পরিবেশ আর অজানা মানুষদের ভিড়ে মানিয়ে নেওয়া বেশ চ্যালেঞ্জিং।

ভাল পারফরম্যান্স না করতে পারলে দিনের শেষে নিজেরও হতাশ লাগে। কারণ কথাতেই আছে, “ফার্স্ট ইমপ্রেশন ইজ দ্য লাস্ট ইমপ্রেশন। ” প্রত্যেক পর্নস্টারের জীবনেও কিন্তু এমন একটা দিন এসেছে। যেদিন প্রথমবার অনস্ক্রিন যৌন মিলনে লিপ্ত হতে হয়েছিল তাদের।

কেমন ছিল সেই প্রথম দিনের অভিজ্ঞতা? ১০-৭টার অফিসের কাজে থেকে কি পর্নস্টারদের পেশা অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং? নারী ও পুরুষ পর্নস্টাররা খোলামেলাভাবেই সেই সব প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন। তাদের বেশ কিছু উত্তর নিঃসন্দেহে বেশ মজার।

এই যেমন একজন বলছেন, “আমাকে বলা হল নগ্ন হলেই মোটা অঙ্কের টাকা পাব। শুনেই ভাবলাম, ওয়াও! দারুণ ব্যাপার তো! ভাবুন তো, আর কিছু করতে হবে না। নগ্ন হলেই টাকা পাব। ”

আরেক ধাপ উপরে গিয়ে অন্যজন বললেন, “প্রথম যার সঙ্গে যৌনতার দৃশ্য শুট করতে হয়েছিল, তার নামটাই মনে নেই। তবে তার সঙ্গে শুট করতে কোনও অসুবিধা হয়নি। ”

এক পর্নস্টার আবার শুটিং নিয়ে নয়, চিন্তিত ছিলেন নিজের ইংরাজি ভাষা নিয়ে। বলছেন, “আমি ভাল ইংরাজি বলতে পারি না। প্রথমদিন চিন্তা হচ্ছিল, আমার অভিব্যক্তির উচ্চারণগুলো ঠিক হচ্ছিল কি না। ”

তবে তাদের মধ্যে বেশিরভাগ পর্নস্টারই বলছেন, প্রথম দিন ঘর ভর্তি লোকজন, কড়া আলো আর ক্যামেরার সামনে যৌন দৃশ্য শুট করতে বেশ অস্বস্তিকর লেগেছিল। সবকিছু ঠিকঠাক হচ্ছে কি না, সে ভয়ও হয়েছিল। সম্প্রতি একটা  সাক্ষাতকারে কয়েকজন পর্নস্টার নিজেদের এমন অভিজ্ঞতার কথা বলেন।

দেখুন সেই ভিডিও :


মন্তব্য