kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


৫১ বছর পর স্ত্রীর ভালোবাসার কথা জেনে অভিভূত স্বামী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩ এপ্রিল, ২০১৬ ০৯:৪৪



৫১ বছর পর স্ত্রীর ভালোবাসার কথা জেনে অভিভূত স্বামী

স্বামীকে ভালোবাসতেন খুব। কিন্তু, নিজেমুখে তা কোনোদিন স্বামীকে বলতে পারেননি জার্মেইনি ল্যাংডন।

আর তাই নিজের ভালোবাসার কথা দেয়ালে লিখেছিলেন। ৫১ বছর পর স্ত্রীর ভালোবাসার কথা লেখা দেয়ালের ওই অংশ পৌঁছাল স্বামী রয়ের হাতে।

সময়টা ১৯৬৫ সালের ১৭ মার্চ। জার্মেইনি ল্যাংডন নিজের স্বামী রয়কে 'আই লাভ ইউ' লিখতে বসেছিলেন। কিন্তু, লজ্জায় কোনোভাবেই নিজের মনের কথাটা স্বামীকে জানাতে ওই তিনটে শব্দ লিখতে পারছিলেন না। বারবার টুকরো কাগজ হাতে তুলে নিয়েছিলেন ওই তিনটি শব্দ লেখার জন্য। তবুও পারেননি সেদিন। এরপর ঠিক করেন এমন কোথাও কথাগুলি লিখে রাখবেন যা কোনোদিন মুছে যাবে না। ভাবনা অনুসারেই কাজ। বাড়ির দেয়ালের একটি অংশে নিজে হাতে খোদাই করেই লিখে ফেললেন জীবনের সেই মহামূল্যবান কথাটি।

এরপর কেটে গেছে বহু বছর। দেয়ালে মরচে পড়েছে। তাই তা ঢাকার জন্য তাঁদের অন্টারিওর বাড়িটিতে বসানো হয় কৃত্রিম কাঠের দেয়াল। ঢাকা পড়ে যায় জার্মেইনির সেই নিবেদন। এদিকে, বছর কয়েক আগেই বার্ধক্যজনিত কারণে মৃত্যু হয় জার্মেইনির। বয়স বেড়েছে রয়েরও। অবশেষে, একাকিত্ব কাটাতে আজ নিজের সন্তানদের সঙ্গেই থাকেন রয়। বিক্রি করে দিয়েছেন অন্টারিওর বাড়িটি।

সম্প্রতি বাড়িটি কেনার পর তাতে মেরামত করার উদ্যোগ নেন বাড়ির নতুন মালকিন রেবেকা। কিন্তু, যেই না সেই কৃত্রিম প্রলেপ খোলা, সঙ্গে সঙ্গে বেরিয়ে পড়ে স্বামীকে প্রেম নিবেদন করা সেই তিনটি শব্দ। উদ্যোগ নেন ওই লেখাটি তিনি রয়ের কাছে পৌঁছে দেবেনই। যেমন ভাবা তেমনই উদ্যোগ। সোশাল নেটওয়ার্কিং সাইটের মাধ্যমে রয়ের এক মেয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে দেয়ালের ওই অংশটুকু তুলে দেওয়া হয় রয়ের হাতে। তিনিও সেই দেয়ালের টুকরোটি পেয়ে বেজায় খুশি। নিজের স্ত্রীর কথা মনে করে কিছুটা আবেগ বিহ্বল হয়ে পড়েন রয়ও।


মন্তব্য