kalerkantho

25th march banner

বোমা হামলা নিয়ে যা বললেন মার্ক জাকারবার্গ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩১ মার্চ, ২০১৬ ১৩:১৭



বোমা হামলা নিয়ে যা বললেন মার্ক জাকারবার্গ

ফেসবুকের নতুন কোনো পণ্য বা পরিকল্পনার কথা নয়, মার্ক জাকারবার্গ কথা বললেন সন্ত্রাসবাদ নিয়ে। ব্রাসেলস হামলা নিয়ে তিনি পারস্পরিক বোঝাপড়া, সহানুভূতি এবং ভালোবাসার কথা বললেন। কিছু দিন আগে আঙ্কারা, ব্রাসেলস এবং লাহোরে সিরিজ বোমা হামলায় হতাহতের ঘটনায় নিজের সোশাল মিডিয়া সাইটে পোস্ট দিলেন এই বিলিওনিয়ার।

জাকারবার্গ লিখেছেন, প্রতিটি হামলার মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। কিন্তু সবগুলো একটি হুমকিই দিচ্ছে। প্রতিটি হামলা মানুষের মধ্যে ভয় ও অবিশ্বাস ছড়িয়ে দিচ্ছে। সমাজের একজনকে অন্যের বিরুদ্ধে দাঁড় করিয়ে দিচ্ছে। এদের বিরুদ্ধে টেকসই উপায় বের করতে হলে এমন এক দুনিয়া সৃষ্টি করতে হবে যেখানে সবাই পারস্পরিক বোঝাপড়া এবং সহমর্মিতার মাধ্যমে ঘৃণাকে দূর করবে।

প্রতিটি দেশের প্রত্যেক মানুষ একে অন্যের সঙ্গে জুড়ে থাকা এবং একে অন্যের প্রতি ভালোবাসা অনুভব করবেন, জানান জাকারবার্গ।  

এ মাসের প্রথম দিকে তুরস্কের রাজধানীতে গাড়িবোমা হামলায় ৩৭ জন নিহত ও ১২৫ জন আহত হয়েছেন। শহরের দক্ষিণে গুভেরপার্ক এলাকায় এ মারাত্মক হামলা পরিচালনা করে কুর্দিস্তান ফ্রিডম ফ্যালকনস।

এ ছাড়া বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে তিন-তিনটি আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৩৫ জন নিহত হন। শহরের সাবওয়ে স্টেশন এবং বিমানবন্দরে আইএসের এই হামলায় ৩০০ জন আহত হয়েছেন।

এ ছাড়া পাকিস্তানের লাহোরে আল-কায়েদার স্প্লিন্টার গ্রুপ জনবহুল একটি পার্কে বোমা হামলা চালায়। তারা ওই পার্কে ঘুরতে বাসা খ্রিষ্টানদের টার্গেট করে বলে জানায়।

গত বছর প্যারিসে বোমা ও বন্দুক হামলায় ১৩০ জনের মৃত্যু ঘটে। তখন ফেসবুক ব্যবহারকারীদের 'চেক ইন' ফিচার দয়ে যার মাধ্যমে আত্মীয় বা বন্ধুদের নিরাপত্তা বিষয়ে খবর আদান-প্রদান করা যেতো।

পৃথিবীর ষষ্ঠ ধনী ব্যক্তি জাকারবার্গ তার ফেসবুক পোস্টে সন্ত্রাসবাদ নিয়ে কথা বললেন।

পোস্টে তিনি আরো বলেন, পাকিস্তানে বোমা হামলার পর আমরা 'সেফটি চেক' ব্যবস্থা চালু করি ফেসবুকে। গত দুই মাসে কয়েকবার সেফটি চেক ফিচারটি চালু করতে হয়েছে। এরর মাধ্যমে প্রতিটা মানুষ তার কাছের মানুষদের কাছে তার নিরাপত্তার বিষয়ে তথ্য দিতে পারবেন।

তা ছাড়া ফেসবুক তার ইন্সটাগ্রামের মাধ্যমে মধ্যপ্রাচ্যে আইএসের বিরুদ্ধে যুদ্ধরত ইরাকি সৈন্যদের প্রমোশন করে।
সূত্র : ডেইলি মেইল


মন্তব্য