kalerkantho

রবিবার। ২২ জানুয়ারি ২০১৭ । ৯ মাঘ ১৪২৩। ২৩ রবিউস সানি ১৪৩৮।


দিনের দীর্ঘ সময়ের তন্দ্রায় অপরিণত মৃত্যুর আশঙ্কা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৭ মার্চ, ২০১৬ ১৪:২১



দিনের দীর্ঘ সময়ের তন্দ্রায় অপরিণত মৃত্যুর আশঙ্কা

নতুন এক গবেষণায় ঘুম বিষয়ে মারাত্মক একটি তথ্য দেওয়া হয়েছে। তাতে বলা হয়, দুপুর বেলা ৪০ মিনিটের বেশি সময়ের ঝিমুনিতে আয়ু কমে যায়। এতে অপরিণত মৃত্যুর আশঙ্কা রয়েছে।

৩ লাখ মানুষের ওপর গবেষণা চালানো হয় যারা দিনের বেলা দীর্ঘ সময় ধরে ঝিমিয়ে নেন। এটা পরিপূর্ণ ঘুম নয়, তন্দ্রা। এ ধরনের অভ্যাসে স্থূলতা, উচ্চরক্তচাপ ও কোলেস্টরেল বৃদ্ধি ঘটে। ২১টি গবেষণা তথ্য বিশ্লেষণ করে এই গবেষণা সম্পন্ন করা হয়। ওই গবেষণাগুলোতে সর্বমোট ৩ লাখ ৭ হাজার ২৩৭ জনের দুপুরে ঘুমের অভ্যাস পর্যবেক্ষণ করা হয়। আমেরিকান কলেজ অব কার্ডিওলজির বার্ষিক কনফারেন্সে এসব তথ্য দেওয়া হয়। তবে অনেকে বলেন তন্দ্রা স্বাস্থ্যকর। কিন্তু গবেষণায় দেখা গেছে, ৪০ মিনিটের বেশি স্থায়ী তন্দ্রায় অপরিণত মৃত্যুর আশঙ্কা দেখা দেয়।

গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের দিনের বেলা ঘুমানোর বিষয়ে তথ্য জানতে চাওয়া হয়। সেই সঙ্গে তাদের স্বাস্থ্যবিষয়ক ইতিহাসও জানা হয়। অতীতে স্থূলতা, ডায়াবেটিস বা মেটাবলিক সিনড্রোমের মতো সমস্যা রয়েছে কিনা তা জেনে নেন গবেষকরা।

গবেষণায় বলা হয়, দীর্ঘ সময় তন্দ্রাচ্ছন্ন থাকলে দেহ একে গভীর ঘুম বলে ধরে নেয়। এতে দেহের বিপাকক্রিয়া বদলে যায়। কিন্তু অল্প সময়ের তন্দ্রায় দেহ গভীর ঘুমে প্রবেশ করে না।

ইউনিভার্সিটি অব টোকিওর ডায়াবেটোলজিস্ট এবং প্রধান গবেষক ড. তোমোহিদে তামাদা বলেন, দীর্ঘ সময়ের তন্দ্রা এবং বিপাকক্রিয়ার এই সম্পর্ক জানার পর চিকিৎসাবিজ্ঞানে নতুন কিছু যোগ হতে পারে। বিশেষ করে বিপাকসংক্রান্ত সমস্যা দূর করতে এ গবেষণা দারুণ ফলাফল দেবে।

স্বাস্থ্যকর জীবনের জন্যে ঘুম গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। খাবার এবং ব্যায়ামের মতোই জরুরি। অল্প সময় একটু ঝিমিয়ে নিলে সজীবতা ফিরে পাবেন। কিন্তু দীর্ঘ সময় ধরে তন্দ্রা যাওয়ার অভ্যাস এখন থেকেই ত্যাগ করতে পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।
সূত্র : ইনডিপেনডেন্ট

 


মন্তব্য