kalerkantho

রবিবার। ২২ জানুয়ারি ২০১৭ । ৯ মাঘ ১৪২৩। ২৩ রবিউস সানি ১৪৩৮।


অ্যালকোহল পানে যা ঘটে দেহে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ মার্চ, ২০১৬ ১৮:১২



অ্যালকোহল পানে যা ঘটে দেহে

বিভিন্ন মাদক মানুষের মধ্যে ভিন্ন ধরনের নেশার উদ্রেক ঘটায়। সম্প্রতি অ্যালকোহলকে পৃথিবীর সেরা ৫টি মারাত্মক মাদকের একটি বলে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। এটা খুব বেশি মারাত্মক হতে পারে যখন অতিমাত্রায় খাওয়া হবে। মস্তিষ্কের রসায়নে অ্যালকোহল মারাত্মকভাবে প্রভাববিস্তার করে। তবে এটি খাওয়ার পর তাৎক্ষণিকভাব আমরা ভালো বোধ করি। কিন্তু দীর্ঘমেয়াদে অবস্থা চরমে পৌঁছে। এখানে দেখে দিন অ্যালকোহল পানে দেহে আসলে কি ঘটে থাকে।

১. মস্তিষ্কে উত্তেজনা সৃষ্টিকারী কোষগুলোকে নিষ্ক্রিয় করে দেয় অ্যালকোহল। এতে অনেকটা কুঁড়ে বা জড় পদার্থের মতো বোধ করি আমরা।

২. তবে মস্তিষ্কে ডোপামাইন হরমোন ক্ষরণ বৃদ্ধি করে যা আমাদের ভালোলাগা অনুভূতি দেয়। এতে সময়টা সুন্দর কাটে। তৃপ্তি আসে ডোপামাইনের কারণে।

৩. অ্যালকোহল খাওয়ার কিছুক্ষণের মাধ্যমে চিন্তার প্রক্রিয়া ধীর হয়ে আসে। নিঃশ্বাস ধীর হয়ে আসে এবং হৃদস্পন্দনও কমে আসে।

৪. অতিরিক্ত অ্যালকোহল নিউরনের মধ্যকার সংযোগ অনেকটা বিচ্ছিন্ন করে দেয়। নিউরনগুলো মস্তিষ্কে তথ্য প্রবাহের কাজটি করে থাকে।

৫. লিভারের ক্ষতি করে অ্যালকোহল। একটি লিভার সর্বোচ্চ ১ আউন্স তরল তৈরী করতে পারে। বেশি অ্যালকোহল পানে রক্তে হঠাৎ করেই অ্যালোকোহল উপাদান বেড় যায়।

৬. মিনিটের মধ্যে এর প্রভাব বোঝা যায়। তবে পরবর্তী ৪০-৯০ মিনিটের মধ্যে রক্তে অ্যালকোহলের মাত্রা খুব বেড়ে যাবে না।

৭. যারা বেশি পান করেন তাদের ৯০ শতাংশ ফ্যাটি লিভার ডিজিসে আক্রান্ত হন। ওজন বৃদ্ধি বা হ্রাস ঘটে।

৮. অধিকাংশ মানুষের দেহ দ্রুত গতিতে অ্যালকোহল শুষে নেয় যদি পাকস্থলী খালি থাকে। সূত্র : বিজনেস ইনসাইডার    

 


মন্তব্য