kalerkantho

শুক্রবার । ২০ জানুয়ারি ২০১৭ । ৭ মাঘ ১৪২৩। ২১ রবিউস সানি ১৪৩৮।


ডায়াবেটিসের দুশ্চিন্তা ও লজ্জা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে : ড. ফিল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ মার্চ, ২০১৬ ১৮:২৭



ডায়াবেটিসের দুশ্চিন্তা ও লজ্জা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে : ড. ফিল

হুমকি-ধামকি, মাদকের ব্যবহার এবং গৃহ নির্যাতনের কারণে যারা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন, তাদের দৈহিক ও মানসিক স্বাস্থ্য ফিরিয়ে দিতে হাল ধরেছিলেন টক শো হোস্ট এবং মনোবিজ্ঞানী ড. ফিল ম্যাকগ্র। হাজারো বিপথগামী মানুষকে পথে এনেছেন তিনি। অথচ বহু বছর ধরে এ মানুষটিই মারাত্মক স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছেন। টাইপ ২ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত তিনি।

ফক্স নিউজের সিনিয়র ম্যানেজিং হেলত এডিটর ড. ম্যানি আলভারেজ সম্প্রতি ম্যাকগ্রয়ের সঙ্গে তার স্বাস্থ্য বিষয়ে কথা বলেন। মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন ড. ম্যাকগ্র। তাকে এ অবস্থা থেকে বের করে আনা জরুরি।

টাইপ ২ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীদের একটা বিশেষ মানসিক অবস্থা বিরাজ করে। তারা নিজেদের ক্রমেই অলস, অগোছালো এবং খাওয়ায় অরুচি চলে আসে বলে মনে করেন।

এ রোগে আক্রান্তদের মানসিক অবস্থার উন্নতি ঘটাতে ড. ম্যাকগ্র এগিয়ে আসতে চান। তিনি বলেন, ডায়াবেটিস বিষয়ে মানুষের সচেতনতা বৃদ্ধি খুবই জরুরি হয়ে পড়েছে। ২৫ বছর আগে তার ডায়াবেটিস ধরা পড়ে। তখন চিকিৎসক পরবর্তী জীবন কিভাব চলবে তা নিয়ে নিয়ম বেঁধে দেন। আমি ছিলাম সেই মানুষদের দলের একজন যারা শুধু কাজই করে যেতেন। রক্তের গ্লুকোজ ঠিক রাখতে হবে, সাবধানে খেতে হবে এবং আরো নানা নিয়ম। মনোবিজ্ঞানী হিসাবে আমি দেখেছি, এই রোগটি মানুষকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করে তোলে।

ডায়াবেটিসের সবচেয়ে সাধারণ অবস্থাটি হলো টাইপ ২। এটি হলে দেহ সুষ্ঠু উপায়ে গ্লুকোজ উৎপাদন ও তা মজুদ করে রাখতে পারে না। এতে গ্লুকোজ শক্তি উৎপাদনে কোষে না গিয়ে রক্তে মিশতে থাকে। রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা বেড়ে গেলে দেহের নানা প্রত্যঙ্গে সমস্যা দেখা দিতে থাকে।

অবসাদ, ক্রমাগত ক্ষুধা ও তৃষ্ণা লাগা, ঘন ঘন মূত্রত্যাগ, ঝাপসা দৃষ্টি এবং ধীরগতিতে ক্ষত শুকানো ডায়াবেটিসের আগামম লক্ষণ।

ম্যাকগ্র জানান, ইনসুলিন বা খাবার নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে এর চিকিৎসা চলে। এর জন্যে চাই সুষ্ঠু পরিকল্পনা। পুষ্টি বিষয়ে নিজেও বেশ কিছু তথ্য জেনে রাখতে হবে।

একবার সুষ্ঠু পরিকল্পনা করতে পারলে নিজেকে সুস্থ রাখতে পারবেন আপনি। এ নিয়ে আর দুশ্চিন্তার কিছু নেই। মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হতে হবে না। এটি নিয়ে প্রতিদিন ভাবতে হবে না। কেবল নিয়মের সঙ্গে সহজাত হয়ে যান। সূত্র : ফক্স নিউজ

 


মন্তব্য