kalerkantho

শনিবার । ২১ জানুয়ারি ২০১৭ । ৮ মাঘ ১৪২৩। ২২ রবিউস সানি ১৪৩৮।


বিবাহিত জীবনে খুব বেশি আশা করা সম্পর্ক ভাঙনের কারণ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ মার্চ, ২০১৬ ১২:৪৩



বিবাহিত জীবনে খুব বেশি আশা করা সম্পর্ক ভাঙনের কারণ

নতুন এক গবেষণায় বলা হয়, বিয়ের পর সঙ্গী বা সঙ্গিনীর কাছ থেকে অতিরিক্ত আশা করা ঠিক নয়। এতে নানা সমস্যা দেখা দেয় এবং সম্পর্ক ভেঙে যেতে পারে।

পারসোনালিটি অ্যান্ড সোশাল সাইকোলজি বুলেটিনে প্রকাশিত এই গবেষণাপত্রে বলা হয়, দাম্পত্য জীবনে একের প্রতি অপরজন অনেক দায়িত্বশীল ও যত্নশীল হবেন বলেই আশা করা হয়। কিন্তু এই চাহিদার মাত্রা খুব বেশি হলে দাম্পত্য জীবনে তৃপ্তির মাত্রা হ্রাস পেতে থাকে।

টানা চার বছর ধরে গবেষকরা ১৩৫ জোড়া দম্পতির ওপর গবেষণা পরিচালিত করেন।

প্রতি জোড়া দম্পতিকে তাদের জীবনের সমস্যা, বিয়ে নিয়ে তৃপ্তির মাত্রা এবং গুণগত মান বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়। বিভিন্ন ক্ষেত্র এবং উপলক্ষে তাদের সমস্যাগুলো কিভাবে কাজ করে তাও দেখেন গবেষকরা।

ফ্লোরিডা স্টেট ইউনিভার্সিটির মনোবিজ্ঞানী ড. জেমস ম্যাকনাল্টি জানান, এ গবেষণার মূল বিষয় ছিল, বিয়ে থেকে দম্পতিদের কি কম আশা করা উচিত? দেখা গেছে, দাম্পত্য জীবন থেকে যারা খুব বেশি আশা করেন তাদের তৃপ্তির মাত্রা ক্রমেই কমতে থাকে।

বিয়ের সময় একের প্রতি অপরের আশাবাদের ওপর ভিত্তি করে গবেষকরা বলেন, কিছু মানুষ বিবাহিত জীবন থেকে খুব বেশি কিছু আশা করেন। এ ক্ষেত্রে তারা মনে করেন, যে চাওয়া-পাওয়া তাদের পূরণ হবার নয়, তাই মিলবে বিয়ের পর। তাই দম্পতিদের প্রত্যেকে অপরের কাছ থেকে যতটা আশা করেন, তার পুরোটা কখনোই মেলে না।

এ নিয়ে নানা সমস্যার সৃষ্টি হয়। তিক্ত হয়ে ওঠে সম্পর্ক। ড. ম্যাকনাল্টি জানান, সম্পর্কে পরোক্ষ বৈরিতা প্রত্যক্ষ বৈরিতার চেয়ে অনেক বেশি ক্ষতিকর ও ধ্বংসাত্মক। এ খানে যেকোনো সমস্যা সৃষ্টির জন্যে একে অপরকে দোষারোপ করেন।

তাই বিয়ের পর দুজনের মধ্যে হতাশা চলে আসে তখনই, যখন বিয়ের আগে খুব বেশি আশা করে থাকেন।
সূত্র : ইনডিপেনডেন্ট

 


মন্তব্য