kalerkantho


মৃত স্ত্রীকে টেলিভিশনে দেখে হতবাক স্বামী!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ মার্চ, ২০১৬ ১২:৫৫



মৃত স্ত্রীকে টেলিভিশনে দেখে হতবাক স্বামী!

সড়ক দুর্ঘটনায় মারাত্মক আহত হন স্ত্রী। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুও ঘটে তার। নিজ হাতে তাকে কবরস্থ করেন স্বামী। হঠাৎ করে স্বামী নিজ চোখে দেখলেন, স্ত্রী দিব্যি বেঁচে আছেন!

স্ত্রীর খোঁজ পাওয়ার ঘটনাটিও নাটকীয়। টেলিভিশনের একটি জনপ্রিয় অনুষ্ঠানের ভক্ত আবরাঘ মোহামেদ। সেই অনুষ্ঠানে নিজের স্ত্রীকে দেখে হৃদক্রিয়া বন্ধ হবার জোগাড় তার। অথচ প্রাণপ্রিয় স্ত্রীকে নিজ হাতে কবর দিয়েছেন তিনি। মারাত্মক সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গিয়েছিলেন স্ত্রী। কাসাব্লাঙ্কা হসপিটালের চিকিৎসক তার স্ত্রীর মৃত্যুর সংবাদটি দিয়েছিলেন।

কিন্তু মৃত স্ত্রী চলে এলেন ওই অনুষ্ঠানে। টেলিভিশন প্রোগ্রামটির বিষয়ও বেশ অদ্ভুত।

এ অনুষ্ঠানে প্রয়াত প্রিয়জনদের ফিরিয়ে আনা হয়। তাদের সঙ্গে আবারো প্রিয়জনদের যোগাযোগ করিয়ে দেওয়া হয়।

মরক্কোর জনপ্রিয় টেলিভিশন সিরিজ 'আল মুজতাফুন'। স্ত্রীর মৃত্যুর দুই বছর পর অনুষ্ঠানটি দেখতে গিয়েই মোহামেদের রীতিমতো হতবাক। সেখানে তার স্ত্রী ফোন দিয়েছেন। বললেন, তিনি তার স্বামীর সঙ্গে যোগাযোগ হারিয়ে ফেলেছেন। অনুষ্ঠানেই তার স্বামীর নামা ও সাবেক ঠিকানা বলেন। এ খবরটি মোহামেদের বন্ধুরাও ফোন দিয়ে জানান।

মোহামেদ স্প্যানিশ প্রেসকে জানান, আমি জানতাম না অন্য কোনো নারীর দেহ কবরস্থ করা হয়েছিল। এখন প্রশ্ন হলো, সমস্যাটা কোথায় হয়েছিল? স্ত্রী কেন দুই বছর সময় নিলেন তার সঙ্গে যোগাযোগ করতে?

একটা তত্ত্ব প্রয়োগ করা যেতে পারে, স্ত্রী তার স্মৃতিশক্তি হারিয়ে ফেলেছিলেন। স্ত্রী পাহাড়বেষ্টিত ছোট শহর আজিলাল-এ বাস করছেন। তা ছাড়া মোহামেদের মনে পড়ছে, চিকিৎসকরা বলেছিলেন, তার স্ত্রী সম্ভবত বাঁচবে না। আর চিকিৎসার খরচও লাগবে। তাই মোহামেদ বাড়িতে ছুটে যান পয়সা আনতে। সেখানে যেতে-আসতে চার ঘণ্টা সময় চলে যায়। হাসপাতালে পৌঁছে শোনেন, স্ত্রী বেঁচে নেই। এরপরই তিনি কাফে মোড়ানো স্ত্রীর মৃতদেহ দেখতে পান। চেহারা দেখতে পারেননি। কেবল কফিনে মুড়িয়ে বাড়িতে নিয়ে করব দিয়ে দেন।
সূত্র : মিরর

 


মন্তব্য