kalerkantho


‘অফিস রাজনীতি’ সামলাতে...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ আগস্ট, ২০১৮ ০৯:২০



‘অফিস রাজনীতি’ সামলাতে...

ছবি অনলাইন

কর্মক্ষেত্র নিয়ে যারা গবেষণা করে তাদের মতে, আজকের যুগে ‘অফিস রাজনীতি’ প্রত্যেক কর্মীর জন্য এক অনিবার্য বাস্তবতা। কেউ জড়াতে চাক বা না চাক, শেষ পর্যন্ত ‘অফিস রাজনীতি’র অংশ হতে হবে আপনাকে। কর্মক্ষেত্রের রাজনীতি সামলে নিয়ে সামনে এগিয়ে যাওয়ার উপায় নিয়েই আজকের টিপস

বুদ্ধিবৃত্তির চর্চা করুন

অফিস রাজনীতি অনেক সময় ক্ষতিকর হয়ে ওঠে। আপনি এমন অপসংস্কৃতিতে যাবেন না। আর এ থেকে দূরে থাকতে বুদ্ধিদীপ্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করুন। সেই সঙ্গে অভ্যন্তরের সামাজিক ও রাজনৈতিক অবস্থা পর্যবেক্ষণে রাখতে হবে। বিশেষ পরিস্থিতিতে কর্মীবাহিনী এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সম্পর্কটা কেমন চলছে সেদিকে দৃষ্টি রাখুন। আপনার চারপাশে প্রত্যেকের দৃষ্টিভঙ্গি ও মতামতের বিষয়ে সচেতন থাকুন। সব কিছু থেকে ভালো বিষয়গুলোই গ্রহণ করতে হবে।

প্রতিষ্ঠানের মঙ্গল করুন

প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানে এমন কিছু মানুষ আছে, যাদের প্রভাব পদবিকেও ছাড়িয়ে যায়। অর্থাৎ প্রভাব খাটানোর জন্য তাদের উচ্চপদের মর্যাদার প্রয়োজন পড়ে না। এই মানুষগুলোর সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকা জরুরি। একটি কথা বারবারই বলা হচ্ছে যে আপনি তাদের সঙ্গে মানিয়ে চলবেন যারা সার্বিকভাবে প্রতিষ্ঠানের মঙ্গলের জন্য কাজ করে যায়। বিপরীত পক্ষকেও পাবেন, কিন্তু তাদের এড়িয়ে চলুন।

যোগাযোগ বৃদ্ধি করুন

শুধু প্রতিষ্ঠানের ভেতরেই নয়, বাইরেও সম্পর্কে বিস্তার ঘটানো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। পরিচিত মহলের পরিসর যত বিস্তৃত হবে, আপনার সুযোগ তত বাড়বে। তবে নেতিবাচক মানসিকতার ব্যক্তিদের কাছ থেকে এক শ হাত দূরে থাকুন। প্রতিষ্ঠানের যে ব্যক্তিরা কর্মী ও অফিসের উন্নয়নে ব্যস্ত থাকে, তাদের সহায়ক হওয়ার প্রচেষ্টা থাকতে হবে আপনার মাঝে। তাদের কাছ থেকে পরামর্শ নিন। অভিজ্ঞতা শেয়ার করুন। কোনটা ঠিক আর কোনটা বেঠিক ইত্যাদি বিষয়ে জানার আগ্রহ দেখান।

-- টাইমস জবস অবলম্বনে সাকিব সিকান্দার



মন্তব্য