kalerkantho


সন্তানের যখন পরীক্ষা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ মার্চ, ২০১৮ ০৯:১৪



সন্তানের যখন পরীক্ষা

ছবি অনলাইন

কথা বলতে হবে

পরীক্ষা মানেই বাচ্চাদের জন্য বেশ জটিল ও কঠিন একটা পরিস্থিতি। তাই সন্তানকে একা একটি ঘরে না ফেলে রেখে তাকে মাঝেমধ্যে বাইরে যাওয়ার সুযোগ দিতে হবে; তার সঙ্গে কথা বলতে হবে। এতে করে সে মানসিকভাবে ভালো থাকবে।

ঘরটা ঠিক আছে তো?

মাঝেমধ্যে সন্তানের ঘরে যেতে হবে। দেখতে হবে, ঘরটা ঠিক আছে কি না। ঘরটা গুছিয়ে রাখুন। এক দিন পর পর বিছানার চাদর বদলে দিন। অপরিষ্কার কাপড় থাকলে সেগুলো ধুয়ে দিতে হবে। লক্ষ করুন, ঘরের তাপমাত্রা ও আলো ঠিক আছে কি না।

ভালোবাসা ও স্নেহ

সন্তানের কাঁধে হাত রেখে বলুন, আপনি ওকে ভালোবাসেন, স্নেহ করেন। এটি সন্তানের জন্য দারুণ অনুপ্রেরণাদায়ক। নানাভাবে সন্তানের প্রতি আপনার এই আবেগ প্রকাশ করুন। ওকে একা হতে দেবেন না। পরীক্ষার এই উৎকণ্ঠার সময়ে আপনার সামান্য এই কাঁধে হাত তাকে অনেকটা পরিত্রাণ দেবে।

স্বাস্থ্যকর খাবার

এটি অত্যন্ত জরুরি একটি বিষয়। এ বিষয়ে আপনাকে খুবই সজাগ থাকতে হবে। লক্ষ রাখবেন, পরীক্ষার উদ্বেগের কারণে সন্তান যেন অসুস্থ না হয়ে যায়।

তুলনা নয়

অনেক মা-বাবা অন্য বাচ্চাদের সঙ্গে নিজের সন্তানের তুলনা করে বলে থাকেন, অমুক বাচ্চাটা ভালো, ভালো ফল করে, তুমি অমন নও, তুমি অতটা ভালো হতে পারবে না ইত্যাদি। এ ধরনের কথাবার্তা ভুলেও বলা যাবে না।

-- টাইমস অব ইন্ডিয়া অবলম্বনে ইমরোজ বিন মশিউর



মন্তব্য