kalerkantho


এসিডিটি থেকে মুক্তি পেতে...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০৯:২৮



এসিডিটি থেকে মুক্তি পেতে...

ছবি অনলাইন

এসিডিটিতে সবাই কমবেশি ভুগে থাকে। পাকস্থলীতে এসিডের অতিরিক্ত নিঃসরণই এই সমস্যা সৃষ্টি করে। প্রচলিত ও বিজ্ঞানসম্মত কিছু নিয়ম এ সমস্যা থেকে দূরে রাখতে পারে—

১.   ক্যাফেইনযুক্ত তরল চা পান থেকে বিরত থাকতে হবে। এর পরিবর্তে হারবাল চা পান করা যেতে পারে।

২.   প্রতিদিন ঘুম থেকে ওঠার পর খালি পেটে এক গ্লাস কুসুম গরম পানি পান করা যেতে পারে। সঙ্গে এক চামচ মধু যোগ করলে মন্দ হয় না।

আরো পড়ুন : রোগবালাইয়ে রক্ষাকবচ আঙুর...

৩.   প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় কলা, তরমুজ অথবা শসা রাখতে হবে। তরমুজের জুস এসিডিটির বিরুদ্ধে দারুণ কাজ করে।

৪.   ডাবের পানি এসিডিটি সমস্যার জন্য এক চমৎকার উপশম।

৫.   নিয়ম করে প্রতিদিন এক গ্লাস দুধ পান করা যেতে পারে।

৬.   ঘুমোতে যাওয়ার কমপক্ষে দুই থেকে তিন ঘণ্টা আগে রাতের খাবার সেরে নিতে হবে।

আরো পড়ুন : নিরামিষে সুস্থতা...

৭.   দুটি খাওয়ার মাঝে দীর্ঘ বিরতি দেওয়া যাবে না। অল্প খেতে হবে, তবে নিয়মিত।

৮.   আচার, প্রচুর মসলাযুক্ত খাবার আর ভিনেগার এড়িয়ে চলার চেষ্টা করতে হবে।

৯.   কয়েকটি পুদিনা পাতা পানিতে ফেলে সিদ্ধ করতে হবে। খাবার গ্রহণ শেষে এক গ্লাস ওই পানি খেলে উপকারে আসে।

১০. লবঙ্গ মুখে পুরে চুষতে থাকলে খুব ভালো কাজ দেয়। এটি এসিডিটির বিরুদ্ধে এক মহৌষধ।

১১. মুখের ভেতর শুকিয়ে গেলে ভালো মানের চুয়িংগাম মুখে নেওয়া যেতে পারে। মুখ-নিঃসৃত লালা হজমের জন্য উপকারী। আর হজমের কাজ ঠিকমতো হলে এসিডিটির পরিমাণ কমে যাবে।

১২. আদা হজমশক্তি বাড়ায়। রান্নায় এটির ব্যবহার উপকার দেয়।

১৩. এক গ্লাস পানিতে চিনি আর লেবু মিশিয়ে দুপুরের খাবারের এক ঘণ্টা আগে পান করতে হবে। এতে করে খাবার সময় বা পরে তেমন একটা অস্বস্তি বোধ হয় না।

১৪. সব ধরনের সবজি খেতে হবে।

১৫. প্রচুর পানি পান করতে হবে।

-- টাইমস অব ইন্ডিয়া অবলম্বনে ইমরোজ বিন মশিউর



মন্তব্য