kalerkantho


পানির ওজন নাকি চর্বির?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০৯:২৬



পানির ওজন নাকি চর্বির?

ছবি অনলাইন

ওজন নিয়ে স্বাস্থ্যসচেতন মানুষের মধ্যে অশান্তির শেষ নেই। অনেকেই জানে না, দেহের ওজন দিনের সময় এক রকম, আবার অন্য সময় পাল্টে যায়। আসলে ওজন হ্রাস-বৃদ্ধির পেছনে কেবল চর্বিই ভূমিকা রাখে তা নয়, পানিও কারসাজি করে। তাই চর্বির ওজন আর পানির ওজনের পার্থক্য বুঝতে হবে

স্থূলতাজনিত ওজন

আসলে চর্বির কারণে ওজন বাড়লে তা ওজন মাপনীতে ধরা পড়তে কয়েক সপ্তাহ লেগে যেতে পারে। ক্যালরি যতটা পোড়ানো হয়, তার চেয়ে বেশি গ্রহণ করলে ওজন বাড়বে। যেসব খাবারে উচ্চমাত্রার চর্বি ও চিনি আছে, সেগুলো খেলে স্থূলতা দেখা দেবে। ২০০৬ সালে এক গবেষণায় বলা হয়, চিপস বা কেক কিংবা বেভারেজের মতো খাবার ও পানীয়তে দেহে চর্বি জমে।

আরো পড়ুন : মেদহীন পেটের জন্য সকাল ৮টার আগে মাত্র একটি খাবার

পানির ওজন

যদি কয়েক দিন বা সপ্তাহখানেকের মধ্যে ওজন বাড়ে, সেটি হতে পারে পানি পানের কারণে। স্বাস্থ্যের যত্নে পর্যাপ্ত পানি খেতে হয়। যারা একটু বেশি খায়, তাদের ওজন বাড়তেই পারে। কারণ পানিরও তো ওজন আছে। এটা যোগ হয় দেহের ওজনের সঙ্গে।

যেভাবে বোঝা যাবে

ওজন বৃদ্ধির বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা চারটি কার্যকর পদ্ধতির সন্ধান দিয়েছেন :

পদ্ধতি ১

ওজন মেপে আগের দিনের ওজনের সঙ্গে তুলনা করতে হবে। যদি আগের চেয়ে মোটামুটি ৪৫০ গ্রাম বেশি হয় তবে কারণ হিসেবে ধরে নেওয়া যেতে পারে পানিকে।

আরো পড়ুন : নদীর পানি, ডিটারজেন্ট, শ্যাম্পু আর রাসায়নিক উপাদান = 'খাঁটি দুধ'! (ভিডিও)

পদ্ধতি ২

এক মাস আগের চর্বির সঙ্গে বর্তমানের পরিমাণ তুলনা করতে হবে। এর মধ্যে পার্থক্য বলে দেবে স্থূলতার সমস্যা দানা বাঁধছে কি না। যদি পরিমাণ বেড়ে যায়, তাহলে নিয়ন্ত্রণ শুরু করতে হবে।

পদ্ধতি ৩

দুই হাত-পা আর মুখ আগের চেয়ে ফোলা ফোলা লাগে কি না খেয়াল করতে হবে। যদি আঙুলে চাপ দেওয়ার পর তা আগের অবস্থায় ফিরে আসতে কয়েক সেকেন্ড বা তার বেশি সময় লাগে, তবে পানির ওজন বেড়েছে বলে ধরে নেওয়া যায়।

পদ্ধতি ৪

স্ফীত পায়ের লক্ষণ স্পষ্ট হয় মোজা পরার পর। মোজা পরে বাইরে গিয়ে ফিরে পায়ে ছাপ পড়ে কি না খেয়াল করতে হবে। কারণ পানির কারণে ওজন বাড়লে পায়ে ছাপ বসে।

--টাইমস অব ইন্ডিয়া অবলম্বনে সাকিব সিকান্দার

 


মন্তব্য