kalerkantho


যে বদভ্যাসে যখন-তখন অসুস্থ আপনি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ অক্টোবর, ২০১৭ ১৫:১৬



যে বদভ্যাসে যখন-তখন অসুস্থ আপনি

বিশেষজ্ঞদের মতে, যখন তখন অসুস্থ হওয়ার পেছনে আসলে আমাদের দৈনন্দিন কিছু বদভ্যাস দায়ী থাকে। এগুলো অতি সাধারণ কাজ।

কিন্তু কেউ ভাবতেই পারেন না যে, এতে কত ভয়াবহ বিষয় লুকিয়ে রয়েছে। জীবাণুঘটিত কিছু সমস্যার কারণেই মানুষ সহজোই অসুস্থ হয়ে পড়ে। এগুলো সাধারণ অসুখ মনে হলেও যখন তখন মারাত্মক হওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়। হোক তা ছোটখাটো, আরেকবার দেখে নেওয়া যাক। আর অবশ্যই সাবধান হয়ে যাবেন।

টয়লেটে ফোন ব্যবহার 
ব্যস্ত জীবনে এ কাজটি মানুষের অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। বাথরুমে ফোন দিয়ে যাওয়া। যদি অফিসের বড় কর্তা ফোন দিয়ে বসেন? কিংবা জরুরি একটা ফোন আসবে। আর ওটার জন্যে টয়লেটে ফোন নিয়ে যাওয়া দারুণ অস্বাস্থ্যকর বিষয়।

লন্ডন মেট্রোপলিটান ইউনিভার্সিটির বিশেষজ্ঞ ড. পল মেনওয়েরে বলেন, টয়লেটে ফোন স্পর্শ করা এবং দেহের অন্যান্য অংশে স্পর্শ করাতে মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকি রয়েছে।  

হ্যান্ডব্যাগটাকে গুছিয়ে না রাখা 
এই ব্যাগ আর ব্যাগের ভেতরে যা থাকে তাতে পূর্ণ থাকে জীবাণু। এতে নরোভাইরাস, এমআরএসএ এবং ই.কোলি'র মতো কঠিন জীবাণু থাকে। তাই এদের পরিষ্কার করে না রাখা অস্বাস্থ্যকর বিষয় হবে। এটাকে গুছিয়ে না রাখলে ওটার দিকে চোখ দেওয়ামাত্র মনটাও অস্থিরতায় ভরে যায়। তাই বাড়িতে একটা নির্দিষ্ট স্থানে ব্যাগ রাখুন। বাইরে ওয়াশরুমে গেলে কোনো হুকের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখুন। আর অবশ্যই পরিষ্কার করে ও গুছিয়ে রাখবেন।  

বাড়ির ভেতরে জুতা পরা 
এক গবেষণায় বলা হয়, ৩৯.৭ শতাংশ জুতায় সি. ডিফ নামের এক জীবাণু থাকে। এটা ডায়রিয়ার কারণ। ড. মেসওয়েলে জানান, কারো জুতা থেকে যদি দুর্ঘটনাক্রমে এই ভাইরাস দেহে প্রবেশ করে তো ডায়রিয়া নিশ্চিত। তাই বিশেষজ্ঞরা জুতা ঘরের বাইরে রাখার পরামর্শ দেন।  

টিভির রিমোট না পরিষ্কার করা 
যে রিমোট প্রতিদিন হাতে নিয়ে টেলিভিশনের সামনে বসে থাকেন, ধারণাও নেই ওটাতে কি পরিমাণ জীবাণু থাকে। তাই প্রায়ই জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করে রাখা উচিত। এক হাত থেকে অন্য হাতে গেলেও জীবাণু ছড়িয়ে পড়ে। তাই সাবধাণ! এতে কিন্তু ই.কোলি ভাইরাস থাকে।  

রান্নাঘরের স্পঞ্জ পরিষ্কার না করা 
বাসন মাজার স্পঞ্জ কিন্তু জীবাণুর আখড়া। এটাকে প্রতিবার ব্যবহারের পর পরিষ্কার করে রাখতে হবে। সেই সঙ্গে ক'দিন পর পর বদলাতে হবে। নয়তো আপনাকেই অসুস্থ হতে হবে।
সূত্র : ইন্ডিয়া টাইমস 


মন্তব্য