kalerkantho


ঋণমুক্ত থাকতে চাইলে মেনে চলুন...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ মার্চ, ২০১৭ ১০:৩৭



ঋণমুক্ত থাকতে চাইলে মেনে চলুন...

ক্রেডিট কার্ডে সতর্ক থাকুন
আজকাল মানুষ কেনাকাটার জন্য ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। যখনই ক্রেডিট কার্ডে অর্থ খরচ করছেন, তখনই কিন্তু ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়ছেন আপনি।

তাই বলে একে বিদায় দেওয়ার কথা বলা হচ্ছে না। বরং আপনি যা খরচ করবেন তার পুরোটা শোধ করে দিন সময়মতো।

ঋণে গাড়ি নয়
যাতায়াতের জন্য অনেকে মোটরসাইকেল কিংবা ‘চার চাকার’ গাড়ি কেনেন ঋণ করে। এ ঋণ থেকে মুক্তি পেতে কম মূল্যের গাড়ি কিনতে পারেন। বিলাসিতা না করে বাস্তবিক প্রয়োজনটুকুই মেটানোর চেষ্টা করুন। এমনও হতে পারে, বিকল্প কোনো উপায়ে যাতায়াত করে পরে টাকা জমিয়ে গাড়ি কিনতে পারেন।

সঞ্চয়
ঋণমুক্ত থাকার সবচেয়ে কার্যকর উপায় হলো সঞ্চয়ের ভাণ্ডার বড় করে তোলা। আয়ের ১০ থেকে ১৫ শতাংশ জমাতে পারেন। দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা সফল করতেও সঞ্চয়ের বিকল্প নেই।

ঋণমুক্ত ভবিষ্যৎ গড়তে পারবেন সঞ্চয়ের বদৌলতে।

বাসস্থান
অনেকের জন্যই বাড়িভাড়ার জোগান সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। আপনি একা বা পরিবার নিয়ে ভাড়া বাসায় থাকতে গেলে আয়ের অনেকটাই বেরিয়ে যায় এ কাজে। বাড়িভাড়া দেওয়ার পরও সঞ্চয় করা বিশাল এক সফলতা। অনেকে বাসস্থানের ব্যবস্থা করতে গিয়ে সঞ্চয়ী হয়ে উঠতে পারেন না। তাই থাকার জন্য ন্যূনতম ব্যয়টুকু করুন। তাহলে অর্থ জমাতে পারবেন। দেখবেন একসময় একটা ফ্ল্যাট কেনার অর্থ জমা পড়েছে আপনার ফান্ডে।

যা প্রয়োজন, তাই কিনুন
অপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কেনার পেছনে প্রচুর অর্থ ব্যয় হয় আমাদের। দৈনন্দিন জীবন চালাতে কী কী প্রয়োজন, এর একটা তালিকা প্রস্তুত করুন। বাড়তি জিনিসগুলো তালিকা থেকে ফেলে দিন।

--চিট শিট অবলম্বনে সাকিব সিকান্দার


মন্তব্য