kalerkantho


বিশেষ শিশুদের সেবায় অসামান্য উদ্যোগ SCIRF-এর বর্ষপূর্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২০:৪৮



বিশেষ শিশুদের সেবায় অসামান্য উদ্যোগ SCIRF-এর বর্ষপূর্তি

Special Child Information and Resource Forum (SCIRF) ২০১৬ সালের ২৬ মার্চ যাত্রা শুরু করে। এটি মূলত বিশেষ শিশুদের  ফোরাম।

আমাদের দেশে বিশেষ শিশুরা যেমন- অটিস্টিক,  এডিএইচডি, ডাউন সিনড্রোম, বধির (কালা), মূক (বোবা) শিশুরা সমাজে সঠিকভাবে মূল্যায়িত হয় না। শুধু তাই নয়, অজ্ঞতাজনিত কারণে এদের সমাজের একটি অংশ কিছু অদ্ভূত নেতিবাচক ধরনের মূল্যায়নও করে থাকে।  

এসব শিশুদেরকে ‘অপয়া’, ‘জীন ভূতের আছরে ধরা’ ইত্যাদি বিভিন্ন নেতিবাচক বিশেষণে মূল্যায়ন করা হয়।

 

বিশেষ শিশুদের সম্পর্কে সমাজে সচেতনতা বৃদ্ধি এবং বিশেষ শিশুদের প্রতিপালনে বাবা-মা ও অভিভাবকদের জন্যে দৈনন্দিন টিপস প্রদানই মূলত এই ফোরামকে গ্রহণযোগ্য করে তুলেছে অটিজম তাড়িত ও অন্যান্য সমস্যাক্রান্ত শিশুদের অভিভাবকদের কাছে।

বিশেষ শিশুদের নিয়ে করা ফোরাম স্কার্ফের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য দিকটি হচ্ছে, এটা কোনো এনজিও বা সরকারি প্রতিষ্ঠান নয়। সম্পূর্ণ ব্যাক্তিগত উদ্যোগে এটি পরিচালিত হয়ে আসছে।

এই পেজটির ঠিকানা www.facebook.com/scirf

এমন বিষয়কে নিয়ে কাজ করার কারণ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ফোরামের উদ্যোক্তা জুয়েল কালের কণ্ঠকে বলেন, বিশেষ শিশুর অভিভাবক হওয়ায় এদের বাবা মাদেরকেও অনেক কর্কশ সমালোচনা শুনতে হয়, এসব শিশুর পিতামাতার সমাজও দিনে দিনে ছোট হয়ে যায়।  

তিনি নিজেও একজন বিশেষ (অটিস্টিক) শিশুর পিতা। এমন শিশু এবং তাদের বাবা-মাকে হরদম বিদ্রূপ, ঠাট্টা আর অসম্মানের সম্মুখীন হতে হয়, এমনকি নিজের একান্ত স্বজনদের কাছেও।

একার্থে,  অবহেলিত এসব শিশু যেখানে বিশেষ যত্ম আর মনোযোগের দাবি করে- উল্টো সমাজের বৃহৎ অংশের মানুষ তাদের একরকম দূরে ঠেলে রাখে। ঠিক এই ধারণাটি দূর করে বিশেষ এই বিশেষ শিশুদের সম্পর্কে সঠিক ব্যাখ্যাটি জনমানুষের কাছে তুলে ধরতেই এ ফোরাম প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে সম্পূর্ণ নিজের খরচে।

প্রসঙ্গত, এই ফোরাম এসকল শিশুদের সমস্যাগুলো তুলে ধরার পাশাপাশি তাদের দৈনন্দিন দেখাশোনা, ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত টিপস প্রকাশ করে থাকে। এগুলো স্কার্ফের ফেসবুক পেজ-এ নিয়মিত দেওয়া হয়। এতে এ এধরনের বিশেষ শিশুর বাবা-মায়েরা ব্যাপকভাবে উপকৃত হচ্ছেন।

বিষয়টি ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর কতোটা কাজে দিচ্ছে তার প্রমাণ- এর ফেসবুক পেজের ফলোয়ায়ের সংখ্যায়। বর্তমানে এর ফলোয়ার ২ লাখ ৮২ হাজার এবং এটি ক্রমাগত বেড়েই চলছে। মাত্র এক বৎসর সময়ে এ ধরণের একটি অবহেলিত বিষয়নির্ভর ফেসবুক পেজে এমন সাড়া নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয় এবং আলোচনার দাবি রাখে।

আপনার বিশেষ মনোযোগ অটিজম আক্রান্ত শিশুকে করে তুলতে পারে উৎফুল্লা, আনন্দচিত্ত

SCIRF-আরও একটি উল্লেখযোগ্য কাজ করেছে। সেটি হচ্ছে বাংলা ভাষায় এরাই সর্বপ্রথম এসব বিশেষ শিশুদের সহায়তার জন্য, তাদের বাবা-মারা যাতে এ সংক্রান্ত জরুরি তথ্যগুলো সহজেই পেতে পারন, সে লক্ষ্যে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ তৈরি করেছে। এদের তৈরি তিনটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ  'অটিজম', 'এডিএইচডি' এবং 'scirf blogs'- গুগল স্টোর থেকে সহজেই নামিয়ে নেওয়া যায়।  


মন্তব্য