kalerkantho


এবার শরীরের তিল নিয়ে গবেষণা, রিপোর্ট বদলে দেবে ধারণা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১১:১৪



এবার শরীরের তিল নিয়ে গবেষণা, রিপোর্ট বদলে দেবে ধারণা

তিল শুধু রূপ বাড়ায় না। মানুষের শরীরে বেশি তিল থাকার আরও বড় সুফল এবং কুফল রয়েছে।

যে মানুষের শরীরে বেশি তিল থাকে, তাদের চেহারায় বয়সের ছাপ কম পড়ে। এমনটাই বলছে গবেষণা। শরীরে ১০০টিরও বেশি তিল থাকলে চামড়ায় তুলনামূলক ভাবে দেরিতে বয়সের ছাপ পড়ে। তা ছাড়া তিল বেশি থাকা মানুষের শরীরের হাড়ও তুলনামূলক শক্ত হয়। লন্ডনের কিংস কলেজের একদল গবেষক এমন তথ্য জানিয়েছেন।

তাদের গবেষণায় দেখা গিয়েছে, যেসব মানুষের শরীরে ১০০টিরও বেশি তিল আছে তাদের শরীরে কম তিলওয়ালা মানুষের তুলনায় কম অস্টিওপরোসিস দেখা দেয়। বয়সের ছাপ অর্থাৎ চামড়া কুঁচকে যাওয়ার প্রবণতাও কম থাকে। তবে সেই সব মানুষের চামড়ায় বা শরীরের অন্য অঙ্গে ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনাও বেশি।

গবেষকদের বক্তব্য, বেশি তিলওয়ালা মানুষের শরীরে থাকে দীর্ঘতর টেলোমিয়ারস।

জীবকোষের এই সূক্ষ্ম তন্তু টেলোমিয়ারস চামড়াকে বয়সের ছাপ পড়া থেকে রক্ষা করে। এই গবেষক দলের প্রধান ড. ভেরোনিক ব্যাটেইলি বলেন, তিলওয়ালা মানুষের মেলানোমা হওয়ার সম্ভাবনা তুলনামূলক একটু বেশি। তবে তাদের বুড়িয়ে যাওয়ার কাজটি চলে একটু ধীরগতিতে।

একটা মানুষের শরীরে কত তিল থাকতে পারে? সেই উত্তরও দিয়েছে এই গবেষণা। বলা হয়েছে, সাধারণত ৩০ থেকে ৪০টি তিল থাকে মানুষের শরীরে। তবে শরীরে ৬০০টি তিল রয়েছে এমন নজিরও পাওয়া গিয়েছে। আর সেখানেই গবেষকরা দেখেছেন যার শরীরে যত বেশি তিল তার শরীরে বয়সের ছাপ পড়ার প্রবণতা তত কম। ২০১৪ সালে এই গবেষণা প্রথম প্রকাশিত হয় রয়্যাল সোসাইটি অফ মেডিসিন কনফারেন্সে।

 


মন্তব্য